করোনা শনাক্ত রোগী মালুমঘাট হতে পালিয়ে থানচি দুর্গম তিন্দুতে আশ্রয়

fec-image

করোনাভাইরাস নমুনা পরীক্ষা পজেটিভ শনাক্ত জেনে চকরিয়া মালুমঘাট এলাকা থেকে পালিয়েছে স্বামী স্ত্রী দুইজন। স্বামী আলীকদম উপজেলা স্ত্রী থানচি উপজেলা দুর্গম তিন্দু ইউনিয়নে ৫ নং ওয়ার্ডে দেবসা পাড়া পিতৃ বাড়ীতে আশ্রয় নেয়ার খবর সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

সামাজিক মাধ্যমে খবর পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসন দেবসা পাড়ায় একটি মেডিকেল টিম পাঠাই। করোনা শনাক্ত রোগীকে উদ্ধার করে থানচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার(১৯ মে) চকরিয়া উপজেলা ১৭ জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয় এর মধ্যে থানচি ও আলীকদম উপজেলা হতে দম্পতি মালুমঘাট এলাকায় বসবাস করতো। এ দম্পতি দু‘জনের জ্বর, স্বর্দি দেখা দিলে স্থানীয় হাসপাতালে নমুনা টেস্ট করার। মঙ্গলবার টেস্ট রিপোর্ট কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ থেকে তাদের পজেটিভ আসে।

ওই দম্পতি একটি মোটর সাইকেল ভাড়া করে ড্রাইভার‘সহ তিনজনেই থানচি বাজারে আসেন। স্ত্রীকে নামিয়ে দুইজন আলীকদ ফেরত চলে যায়। করোনা শনাক্ত দম্পতি নাম সোনাতি ত্রিপুরা (১৯) এবং তার স্বামী প্রদীপ ত্রিপুরা (২৮) গতকাল বিকালে সোনাতি ত্রিপুরা পিতৃ বাড়ি তিন্দু ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে দেবসা পাড়ায় একটি ইঞ্জিন চালিত নৌকাযোগে চলে যায়।

থানচি স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. ওয়াহিদুজ্জামান মুরাদ বলেন, খবর পেয়ে আইনশৃংঙ্খলা বাহিনী, উপজেলা প্রশাসনে যৌথ সমন্বয়ে বুধবার(২০ মে) দেবশা পাড়াকে লকডাউন, ইঞ্জিন চালিত বোট মালিক ও করোনা শনাক্ত হওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে অত্র হাসপাতালে প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য একটি মেডিকেল টিম পাঠানো হয়  এ রিপোর্ট লেখার পর্যন্ত মেডিকেল টিম থানচিতে পৌঁছেনি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ, করোনাভাইরাস, থানচি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 1 =

আরও পড়ুন