করোনা সংকটে গুইমারা রিজিয়নের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত

fec-image

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রাদুর্ভাবের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া গৃহবন্দীদের মাঝে জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম ও ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন সেনাবাহিনীর ২৪ আর্টিলারী ব্রিগেড গুইমারা রিজিয়ন

সেনা সদস্যদের মাসিক রেশন সামগ্রীর কিছু অংশ বাঁচিয়ে ত্রাণ হিসেবে ধারাবাহিক বিতরণ করছেন গুইমারা রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শাহরিয়ার জামান।

সরেজমিনে দেখা যায়, সরকারি আদেশে সারা দেশের ন্যায় পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ির গুইমারা রিজিয়নের আওতাধীন বিভিন্ন এলাকায় মহামারি করোনা ভাইরাস আতংক ও প্রতিরোধে মানুষের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। বন্ধ রয়েছে মানুষের স্বাভাবিক কার্যক্রম ও যোগাযোগ ব্যবস্থা। যার ফলে কর্মহীন হয়ে অসহায় অবস্থায় জীবন যাপন করতে বাধ্য হয়েছে খেটে খাওয়া মানুষ।

অনেকেই ত্রাণ বা কোন সহায়তা না পেয়ে অভাবের তাড়নায় দিশেহারা। খাদ্য সংকটে পড়েছেন তারা। কিছু খাদ্য সামগ্রীর আশায় বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে দেখা গেছে তাদের। মানুষের এমন অবস্থা উপলব্ধি করে গুইমারা রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শাহরিয়ার জামান সেনা সদস্যদের মাসিক রেশন সামগ্রীর কিছু অংশ বাঁচিয়ে ত্রাণ হিসেবে বিতরণ করছেন অসহায়দের মাঝে।

এসময় সেনা সদস্যদের কাঁধের এক পাশে শত্রুকে ঘায়েলের অস্ত্র ,অন্য পাশে অসহায় মানুষদের জন্য ত্রাণ সামগ্রী বহন করতে দেখা গেছে। ত্রাণ সামগ্রীর মধ্যে চাল, লবণ, ডাল, আটা, সুজি, তৈল ও শিশু খাদ্য বিস্কুট রয়েছে।

বুধবার ও বৃহস্পতিবার(৩০ এপ্রিল) সকাল থেকে গুইমারা উপজেলার মসজিদ, মাদ্রাসা, মন্দির ও কেয়াং ঘরের ঠাকুর ,ঈমাম‘সহ অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন রিজিয়ন কমান্ডার।

এছাড়া রিজিয়ন গেইট‘সহ উপজেলার বড়পিলাক, জালিয়াপাড়া, ফজরটিলা, দার্জিলিং টিলা ও ডাক্তার টিলা এলাকায় করোনা সংকটে জনসচেতনতা মূলক কার্যক্রমসহ অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন তিনি।

বিতরণকালে গুইমারা রিজিয়নর কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শাহরিয়ার জামান এর সাথে সিন্দুকছডি জোন অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ কাউসার জাহান, মাটিরাঙ্গা জোন অধিনায়ক লে: কর্নেল মোহাম্মদ নওরোজ নিকোশিয়ার, লক্ষীছড়ি জোন অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. জাহাঙ্গির আলম, রিজিয়ন বিএম মেজর মো. এমরান হোসেন, জি এসও -২(ইন্ট) মেজর মঈনুল আলম, জি এসও (শিক্ষা)মেজর পারভেজসহ সেনা কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মঙ্গলবারে বিতরণ করেছেন রামগড় উপজেলার বিভিন্ন এলাকায়। এ যাবৎ দেড় হাজারের অধিক অসহায় পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন। চলমান রেখেছেন এ ত্রাণ বিতরণ ও জনসচেতনতা মূলক কার্যক্রম।

প্রতিদিনই রিজিয়নের আওতাধীন সিন্দুকছড়ি, লক্ষ্মীছড়ি, মাটিরাঙ্গা, রামগড় ও মানিকছড়ির বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে অসহায়দের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী। যা খেয়ে বর্তমান সময়ে বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখছেন এ অসহায় মানুষগুলো।

ত্রাণ বিতরণকালে রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শাহরিয়ার জামান জানিয়েছেন, করোনা সংকট প্রতিরোধে, জনসচেতনতা ও সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে গুইমারা রিজিয়নের সেনা সদস্যরা নিবেদিতভাবে কাজ করছেন।নিজেদের রেশন সামগ্রীর কিছু অংশ বাঁচিয়ে চেষ্টা করছেন হতদরিদ্র ও কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষগুলোর পাশে দাঁড়াতে। করোনা পরিস্থিতির উত্তরণ না হওয়া পর্যন্ত এমন কার্যক্রম চলমান রাখবেন বলেও তিনি জানান।

গুইমারা কেন্দ্রীয় মসজিদের ঈমাম ও বিশ্ব শান্তি বৌদ্ধ বিহারের চাইন্ধা সুরিয়া ভান্তে জানান, করোনা সংকটের এমন মহুর্ত্বে গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডারের মহতি উদ্যোগে তারা আন্তরিকভাবে খুশি হয়েছেন। কমান্ডার‘সহ সকল সেনা সদস্যদের মঙ্গল কামনা করেছেন তারা।

এছাড়াও বেশকিছু ত্রাণ গ্রহিতা জানান, গত কয়েকদিন তারা খাদ্য সংকটে ছিলেন, অন্য কারো থেকে তারা ত্রাণ পাননি। তাদের পরিবারে খাদ্য সংকটকালে শুধু সেনাবাহিনী মানবতার সেবক হিসেবে পাশে দাঁড়িয়েছে। এজন্য সেনাবাহিনীর প্রতি তারা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস, গুইমারা, সেনাবাহিনী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − 16 =

আরও পড়ুন