কাউখালীতে সাফজয়ী পাঁচ পাহাড়ি কন্যাকে সংবর্ধনা

fec-image

সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ দলের সদস্য পাহাড়ি কন্যা ‍ঋতুপর্না চাকমা, রূপনা চাকমা, আনাই মগিনী, আনুচিং মগিনী ও মনিকা চাকমা এবং তাদের পৃষ্ঠপোষক বীরসেন চাকমা, কোচ শান্তিমনি চাকমা ও সুইহ্লামং মারমাকে সংবর্ধনা দিয়েছে রাঙামাটির কাউখালী এলাকাবাসী।

শুক্রবার (৭ অক্টোর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার পানছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ২নং ফটিকছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ, পানছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়, ঈরবান ক্লাব ও আগমুলিম ক্লাব এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

২নং ফটিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান উষাতন চাকমার সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন নিউটন চাকমা ও অনিল চাকমা। এসময় উপস্থিত ছিলেন পানছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক সুনীল কান্তি তালুকদার ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের কাউখালী শাখার সভাপতি সান্তনা চাকমা।

সাফ জয়ী খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা দিতে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ২নং ফটিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান উষাতন চাকমা এবং সদস্য সচিব ক্রীড়া সংগঠক সুরেশ কান্তি চাকমার নেতৃত্বে এলাকাবাসীরা অপেক্ষা করতে থাকে। তারা আসলে সমবেত শত শত দর্শক জুম্মোদের ঐতিহ্যবাহী জয়ধ্বনি ‘রেঙ’ দিয়ে আনন্দ-উচ্ছাসে তাদের স্বাগত জানান। পরে তারা ব্যান্ডের তালে তালে প্রায় আড়াই কিলোমিটার পথ হেঁটে পানছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এসে পৌঁছান। সাফ জয়ী খেলোয়াড়রা মঞ্চে উপস্থিত হলে তাদের ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করা হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, পানছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবাগত প্রধান শিক্ষক নতুন জয় চাকমা। এসময় আরো বক্তব্য রাখেন সুনীল কান্তি তালুকদার, পৃষ্ঠপোষক বীরসেন চাকমা, কোচ শান্তিমনি চাকমা, খেলোয়াড় ঋতুপর্না চাকমা এবং মনিকা চাকমা।

এসময় সুনীল কান্তি তালুকদার বলেন, ‘সাফ জয়ী পাহাড়ি মেয়েরা পাহাড়কে নতুন করে আলোকিত করেছেন। শত বাধা বিপত্তি পেরিয়ে তারা আজ সফল হয়েছেন। তাদের সাফল্যে পাহাড়বাসী অত্যন্ত গর্বিত এবং আনন্দিত হয়েছি।’

বীরসেন চাকমা বলেন, ‘পাহাড়ে আমাদের প্রতিভা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। আমরা একটু সহযোগিতা পেলেই সাফল্যের শিখরে উঠতে পারে। ঋতু, রূপনা, আনাইদের এ পর্যায়ে আসতে শুধুমাত্র গুটিকয়েক ব্যক্তির অবদান নয়, এখানে প্রত্যেকের ভূমিকা রয়েছে। কাউখালীতে আমাদের শিক্ষকদের একটা ব্যাচ ছিল। ধারশমনি চাকমা, নলিনী চাকমা, শ্যামল মিত্র চাকমা, ধন কুমার তনচঙ্গ্যা, শশী মনি চাকমা এবং সর্বোপরি সহকারী শিক্ষা অফিসার কৌশিক চাকমা স্যারসহ সবার একটা আন্তরিক প্রচেষ্টা ও পরিশ্রমের ফসল হচ্ছে এরা।’

সাফ জয়ী খেলোয়াড়দের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‍‍‌‘সবাই অর্থ, যশ, খ্যাতি ধারণ করতে পারে না। আমি ঋতু, রূপনা, মনিকা ও আনাইদের বলব, তারা যেন খ্যাতির মোহে বিভ্রান্ত না হয়। অহংকারী যাতে না হয়। তারা যেন নিজেদের সমাজের কথা ভুলে না যায়। তাদের সকলকে বিনয়ী হতে হবে।’

কোচ শান্তিমনি চাকমা বলেন, ‍“এ ধরনের চমৎকার মহতী অনুষ্ঠান যারা আয়োজন করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। সমাজে কারো না কারো এ ব্যাপারে ভূমিকা রাখতে হয়। বর্তমানে যুব সমাজ ইন্টারনেটে জুয়া ও গেম খেলে উচ্ছন্নে যাচ্ছে। একমাত্র খেলাধুলার মাধ্যমে তা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যেতে পারে”।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী খেলোয়াড় ঋতুপর্ণা চাকমা বলেন, ‘আমাদের সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য আপনাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। আজকের এই অবস্থানে আসতে আমাদের অনেক পরিশ্রম ও ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে। এছাড়াও কঠোর আইনশৃঙ্খলা মেনে চলতে হয়েছে। সবাই একতাবদ্ধভাবে পরিশ্রম করেছি বলেই সফল হয়েছি।’

খেলোয়াড় মনিকা চাকমা বলেন,‘যেভাবে আপনার আমাদের সংবর্ধিত করেছেন তা আমাদের আজীবন মনে থাকবে। ভবিষ্যতে আমরা যেন ভালো কিছু করতে পারি তার জন্য আশীর্বাদ কামনা করছি।’

সংবর্ধনা আয়োজক কমিটির সদস্য এবং ঘাগড়া ইউপির ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার মুনিন্দ্র তালুকদার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ক্রীড়াঙ্গনে পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান ও কৃতি ফুটবল খেলোয়াড় গড়তে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বীরসেন চাকমার হাতে সম্মাননা স্মারক ও নগদ অর্থ তুলে দেন। এছাড়াও কোচ শান্তিমনি চাকমার হাতে সম্মাননা স্মারক ও নগদ অর্থ (প্রতীক সম্মানী) তুলে দেন ২নং ফটিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান উষাতন চাকমা।

পরে সাফ জয়ী খেলোয়াড় ঋতুপর্না চাকমা, মনিকা চাকমা, আনুচিং মগিনী, আনাই মগিনী ও রূপনা চাকমার হাতে সম্মাননা স্মারক ও নগদ অর্থ তুলে দেওয়া হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের সমাপনী বক্তব্যে সভাপতি উষাতন চাকমা বলেন, ‘খেলোয়াড়সহ পৃষ্ঠপোষক, কোচ ও অতিথিরা যেভাবে সাড়া দিয়েছেন তাতে আমরা অভিভূত।

খেলোয়াড়দের উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, পাহাড়ের সাফ জয়ী মেয়েরা যেভাবে সুনাম অর্জন করেছেন, তা যেন নিজের সমাজের প্রতি অঙ্গীকার করে ধরে রাখতে পারে।’

সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে বিশেষ ভোজ সভা আয়োজন করা হয়। এরপর বিকেল ৪টায় পানছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পাঁচ খেলোয়াড় আয়োজক কমিটির সদস্যদের সাথে প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পাহাড়ি কন্যা, সংবর্ধনা, সাফজয়ী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন