কাপ্তাইয়ে কর্ণফুলী নদীতে নেমে আবারও লাশ হল এক পর্যটক

fec-image

রাঙ্গামাটির কাপ্তাইয়ের শীলছড়ির সীতারঘাট এলাকায় কর্ণফুলী নদীতে নেমে ৪ ঘন্টা পর পর্যটকের লাশ উদ্বার। শুক্রবার (২৮ মে) তন্ময় দাশ (১৯) চট্টগ্রাম জেলার টাইগার পাস এলাকার বাসিন্দা সুবল দাশের পুত্র। তন্ময় চট্টগ্রাম সিটি কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্র। চট্রগ্রাম হতে ৯ বন্ধু মিলে ঘুড়তে এসে লাশ হয়ে ফিরলো।

নিখোঁজের মাসতুতো ভাই কৃষ্ণ নাথ জানায়, চট্টগ্রাম থেকে তন্ময় সহ তারা মোট ৯ জন কর্ণফুলী নদীর ধারে অবস্থিত সীতার ঘাট মন্দিরে ঘুরতে আসে। তারা মন্দির দর্শনের পর বিকাল ৪.৩০টায় পাশ্ববর্তী ঘাটে কর্ণফুলী নদীতে গোসল করতে নামে। এক পর্যায়ে চোখের পলকে হঠাৎ কর্ণফুলী নদীতে নিখোঁজ হয়ে যায় তন্ময়। পরে তার বন্ধুরা অনেক খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে সরকারের জরুরী সেবা ৯৯৯ নাম্বারে কল দেয়। পরে বিষয়টি কাপ্তাই ফায়ার সার্ভিসকে অবগত করলে তৎক্ষনাৎ ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন কাপ্তাই ফায়ার সার্ভিস এর লিডার ধীমান বড়ুয়া নেতৃত্বে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা। তারা এসে নিখোঁজ হওয়া তন্ময়কে খোঁজাখুজি শুরু করে এবং রাঙ্গামাটি ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরীদের খবর দেয়।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহান, কাপ্তাই থানার ওসি মো. নাসির উদ্দীন, কয়েক ঘন্টা খোঁজার পর রাত ৮টা দশে নৌবাহিনী ডুবুরী দল লাশ উদ্বার করে।

এদিকে নিহত তন্ময়ের পরিবারের কান্নায় আকাশ ভারী হয়ে ওঠে। উল্লেখ্য করোনাকালীন প্রশাসনের পক্ষ হতে সকল ধরনের পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ সহ সব কিছু বাঁধা, নিষেধ থাকা শর্তেও পর্যটকরা তা অমান্য করে ঘুরতে আসে এবং পানিতে নেমে পরে। গত বছর পার্শ্বর্বতী এলাকায় এভাবে ঘুরতে এসে নদীতে নেমে আরও কয়েকজন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া পর্যটক পানিতে ডুবে মারা যায়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − 5 =

আরও পড়ুন