কাপ্তাইয়ে পাহাড় ধসের ঝুঁকিতে সহস্রাধিক পরিবার

fec-image

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে পাহাড়ের ঢালুতে হাজারও লোকের বসবাস করছে। প্রশাসনের পক্ষ হতে বারবার সর্তক ও মাইকিং করে নিকটস্থ আশ্রয়কেন্দ্রে আসতে বলা হলেও কেউ তা কর্ণপাত করছেনা। সপ্তাহ যাবৎ থেমে থেমে বৃষ্টিপাত হয়ে ইতোমধ্যে কাপ্তাইয়ের অনেক এলাকায় মাটি নরম হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। যে কোন সময় বড়ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে। কাপ্তাই উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের প্রায় হাজারেরও বেশি লোক পাহাড়ের পাদদেশে ও ঢালুতে মৃত্যু ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছে। কাপ্তাই লগগেইট, ঢাকা কলোনী, কবরস্থান, শিলছড়ি, বড়ইছড়ি, ওয়াগ্গা, কলেজ গেইট এলাকা, মিতিঙ্গাছড়ি, কেপিএম, কলাবাগান, রেশমবাগান, রাইখালী, রিফজিপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকার লোকজন ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস করছে।

এলাকার ইউপি চেয়ারম্যানগন জানান, এ মৌসুমটা এলেই পাহাড় ধসের বিপদে পড়তে হয়। বিপদজনক এলাকায় বসবাসকারীদের ইতোমধ্যে নিরাপদে এবং নিকটস্থ আশ্রয় কেন্দ্র আসার জন্য বলা হয়েছে।
কাপ্তাই নতুনবাজার ঢাকা কলোনী বাসিন্দা মিয়া হোসেন জানান, ঘরবাড়ি নেই, কষ্ট করে থাকি। আমরা যামু কই? আমাদের একটা চিরস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্র দেন। মর্জিনা নামের একজন মহিলা বলেন, মরলে এখানে মরব, আর বাঁচলেও এখানে বাঁচব। আমরা কোথাও যাব না।

সম্প্রতি ৫ বছর পূর্বে কাপ্তাইয়ে ১৩ জুন ১৭ সালে পাহাড় ধসে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে এসকল ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে বসবাসকারীদের নিরাপদে সরে আসতে মাইকিংসহ বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণা করে চলছে। এবং নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে আসার কথা বললেও কেউ কর্ণপাত করছেনা।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনতাসির জাহান জানান, আমরা বারবার পাহাড়ের ঢালুতে এবং ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসকারীদের নিরাপদে সরে আসতে বলছি। এবং নিকটস্থ আশ্রয় কেন্দ্রে আসার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা করছি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কাপ্তাই, ধস, পাহাড়
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 − twelve =

আরও পড়ুন