কাপ্তাইয়ে হাতি-মানুষের সংঘাত নিরসনে প্রচার-প্রচারণা ও লিফলেট বিতরণ

fec-image

রাঙামাটি কাপ্তাইয়ের বিভিন্ন এলাকায় দক্ষিণ বন বিভাগের আয়োজনে হাতি-মানুষের সংঘাত নিরসনে সচেতমূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার (২৪নভেম্বর) বিকাল ৩টা হতে রাঙামাটি পার্বত্য চট্রগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগ সচেতমূলক প্রচার-প্রচারণা ও মাইকিং করেছে। কাপ্তাই নতুনবাজার, লগগেইট, শিল্পএলাকা, তালপট্টি, জেটিঘাট, রামপাহাড়, শিলছড়িসহ বিভিন্ন লিফলেট বিতরণ করেন রাঙামাটি পার্বত্য চট্রগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগীয় কর্মকর্তা রফিকুজ্জামানশাহ (ডিএফও), কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুুনতাসির জাহান।

এসময় সহকারী বনসংরক্ষক গঙ্গা প্রসাব চাকমা, কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আবদুল লতিফ, কাপ্তাই সিএমসি সভাপতি কাজী মাকসুদুর রহমান বাবুল, সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা মাহাবুব আলম,কাপ্তাই রেঞ্জ কর্মকর্তা তানজিলুর রহমান, জেটি স্টেশন কর্মকর্তা প্রীতি চাকমাসহ কাপ্তাইয়ের বিট ও বনরক্ষীগণ এলাকার হাতি -মানুষের দ্বন্দ্ব, সংঘাত নিরসনে আমাদের করণীয় প্রচার-প্রচারণা সকলে মিলে লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে।

রাঙামাটি পার্বত্য চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগীয় কর্মকর্তা রফিকুজ্জামানশাহ জানান, হাতি গ্রামে বা এলাকায় প্রবেশ করলে স্থানীয় বন বিভাগের লোকজনকে খবর দিন। হাতিদের উত্যক্ত না করে বিভিন্ন শব্দ করে বা পটকা ফুটিয়ে তারান। হাতি দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হলে বা কেউ মারা গেলে সরকারের পক্ষ হতে ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা রয়েছে।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুুনতাসির জাহান জানান, আপনারা হাতি দেখলে তার নিকটে গিয়ে কেউ কোন ছবি বা ভিডিও করবেনা। বন্যপ্রাণী (সংরক্ষকন ও নিরাপত্তা) আইন, ২০১২ অনুযায়ী হাতি হত্যা আইনতঃ দণ্ডনীয় অপরাধ। এছাড়া ৭বছর শাস্তি এবং ১০লক্ষ টাকার জরিমানা বিধান রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − four =

আরও পড়ুন