উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত না করায় কাপ্তাই উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের ক্ষোভ

fec-image

সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে  সম্পৃক্ত না করা এবং অপ্রতুল বরাদ্দে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কাপ্তাই উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উমেচিং মারমা। বুধবার (৬ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় তিনি তাঁর দপ্তরে সাংবাদিকদের এইসব অভিযোগ করেন।

এসময় তিনি বলেন, আমি জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে কাপ্তাই উপজেলার ৫ টি ইউনিয়ন হতে বিপুল পরিমাণ ভোট পেয়ে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। স্বাভাবিক কারণে জনগণের কাছে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে আমার যথেষ্ট দায়বদ্ধতা আছে। অথচ উপজেলা পরিষদের কোন উন্নয়ন কর্মকান্ডে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে সম্পৃক্ত করা হয় না এবং কোন সরকারি বিতরণ অনুষ্ঠানে আমাকে অবহিত করা হয় না, এমনকি চিঠি পর্যন্ত দেওয়া হয় না।

টি আর, কাবিখা, ভিজিডি, ভিজিএফসহ সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানদের উপেক্ষা করা হচ্ছে, ফলে তিনি জনগণের কাছে দেওয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পারছেন না।

তিনি সরকারের নিকট প্রতিটি উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে নির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানদেরকে সম্পৃক্ত করার দাবি জানান।

এদিকে এই প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে কাপ্তাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মফিজুল হক সাংবাদিকদের জানান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জানেন না, উপজেলা পরিষদের আইনে কি কি আছে। কোন খাত হতে কোন বরাদ্দ আছে, কার নামে বরাদ্দ আছে তিনি তা জানেন না।

উপজেলা চেয়ারম্যান মফিজুল হক আরও জানান, এডিবি এবং জাইকার বরাদ্দ উপজেলা চেয়ারম্যান এর অনুকূলে আসে তিনি এই কমিটির সভাপতি এবং বাকি গুলোর ক্ষেত্রে তিনি উপদেষ্টা।

উপজেলা পরিষদের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড হতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে ৮ লাখ টাকা এবং তাঁর নিজের বরাদ্দ ২ লাখ টাকাসহ ১০ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে এবং প্রতিটি সরকারি কর্মকাণ্ডে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে অবহিত করা হয়।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনতাসির জাহান এর নিকট এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, আমি যোগদানের পর হতে সরকারি প্রতিটি কর্মকাণ্ডে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে সম্পৃক্ত করেছি, চিঠির মাধ্যমে অবহিত করেছি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × two =

আরও পড়ুন