কুতুবদিয়ায় গ্রীষ্মকালীন কাবাডি খেলায় মারামারি

fec-image

কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উত্তরজোনে গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোযিতায় কাবাডি খেলায় মারামারির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ধুরুং হাই স্কুল ষ্টেডিয়ামে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার পর প্রতিযোগিতা বাকি খেলা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সোমবার ধুরুং স্টেডিয়ামে গ্রীষ্মকালীন আন্ত স্কুল প্রতিযোগিতায় ধুরুং হাইস্কুল এন্ড কলেজ বনাম লেমশীখালী হাই স্কুল দলে কাবাডির ফাইনাল খেলা ছিল। খেলা শেষে লেমশীখালী হাইস্কুল দল চ্যাম্পিয়ন হয়। খেলোয়াড়গণ মাঠ ছাড়ার এক পর্যায়ে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে উভয় দলের খেলোয়াড়, দর্শক, শিক্ষার্থীর মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে মারামারি শুরু হয়। ঘটনায় ধুরুং হাইস্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক সহ লেমশীখালি হাইস্কুলের একজন সহকারী শিক্ষক, দপ্তরি আহত হন।

ধুরুং হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মোর্শেদুল আলম বলেন, কাবাডি খেলা শেষে সামান্য বিষয় নিয়ে দুই দলের সমর্থকদের মাঝে মারামারির ঘটনা ঘটে। তারা চেষ্টা করেছেন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখার।

লেমশীখালী হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আবু ইউসুফ বলেন, তারা চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় বিপক্ষ দলের খেলোয়ায়াড়, সমর্থক, শিক্ষার্থিরা তাদের খেলোয়াড়, শিক্ষকদের উপর হামলা করেছে। বিকালে একই মাঠে ফুটবল টীমের সেমি ফাইনাল খেলার কথা ছিল।তবে তারা বয়কট করেছেন এ ম্যাচ। ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তিনি জড়িতদের বিচার দাবি করেছেন।

থানার এস আই জিয়াউদ্দিন বাবলু জানান, ধুরুং স্টেডিয়ামে কাবাডি খেলা শেষে সমর্থকদের সাথে মারামারির খবর পেয়ে দ্রুত এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। পরবর্তী নিদের্শনা না আসা পর্যন্ত খেলা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কাবাডি খেলায় মারামারি, কুতুবদিয়ায়
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen − 9 =

আরও পড়ুন