কুতুবদিয়ায় বৃষ্টি আর জোয়ারে ৪০ গ্রাম প্লাবিত

fec-image

কুতুবদিয়ায় অতি বৃষ্টি আর জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে অন্তত ৪০ গ্রাম। অমাবশ্যার অতিরিক্ত জোয়ারের পানি প্রচণ্ড বাতাসে ক্ষতিগ্রস্ত ভাঙা বেড়িবাঁধ টপকিয়ে সাগরের লোনা পানি প্রবেশ করছে লোকালয়ে। তলীয়ে গেছে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার বসতঘর। উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের ২০ গ্রামের ৫০ ভাগ ঘরবাড়িতে লোনা পানি। এ এলাকায় পানির আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত সাড়ে ৩ হাজার পরিবার। গত ৫ দিনের টানা বর্ষণ আর জোয়ারের পানির তাণ্ডবে নাজেহাল দ্বীপের নিচু এলাকা।

উত্তর ধুরুং ইউপি চেয়ারম্যান আ.স.ম শাহরিয়ার চৌধুরী জানান, টানা বর্ষণ আর বৈরি আবহাওয়া সাথে অমাবশ্যার জোয়ারের ফলে ইউনিয়ের চর ধুরুং, পশ্চিম ধুরুং, কাইছার পাড়া, আকবর বলী পাড়া, ফয়জানির পাড়া, জমির বাপরে পাড়া, আজিম উদ্দিন সিকদার পাড়া, বাঁকখালী সহ প্রায় ২০টি গ্রাম তলীয়ে গেছে। ভাঙা বেড়িবাঁধ ও বাতাসে লোনা পানি টপকিয়ে ভেতরে প্রবেশ করেছে ইউনিয়নের অর্ধেক এলাকা। আরো ২/৩ দিন থাকবে পানির তাণ্ডব। আবাদি ফসল, কাঁচা ঘরবাড়ি, গবাদি পশু নিয়ে বিপদে আছে অসহায় পরিবারগুলো।

কৈয়ারবিলের বেড়িবাঁধ সংলগ্ন ও তার বাইরে থাকা অন্তত ৫টি গ্রামের অধিকাংশ বাড়িতে সাগরের পানি প্রবেশ করেছে। কৈয়ারবিলের ৪নং ওয়ার্ডের বেড়িবাঁধ সংলগ্ন বাসিন্দা ইব্রাহিম খলিল, আবুল কাশেম, মঞ্জুর আলম জানান, বুষ্টি আর সাগরের পানিতে তাদের ঘরবাড়ি সয়লাব। কাঁচা ঘরের বেড়া বাতাসে ভেঙে গেছে।

আলী আকবর ডেইল ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা নুরুচছাফা জানান, তার ইউনিয়নে বেড়িবাঁধ সংলগ্ন আনিচের ডেইল, কাহার পাড়া, জেলে পাড়া, তেলি পাড়া, কিরণ পাড়া, বায়ু বিদ্যুৎ , সাইট পাড়া, তাবালের চর সহ অন্তত ১০টি গ্রামে পানি উঠেছে। ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ টপকিয়ে পানি প্রবেশ করেছে কয়েক দিন ধরেই। তবে আরো কয়েকদিন বৈরি আবহাওয়া থাকলে তলীয়ে যাবে নিচু এলাকা। তিনি ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধগুলো দ্রুত সংস্কারের দাবি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কুতুবদিয়ায়, প্লাবিত
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 − thirteen =

আরও পড়ুন