কুতুবদিয়া উপজেলা ভুমি অফিসে ১০ পদ শূন্য

fec-image

চরম জনবল সংকটে কুতুবদিয়া উপজেলা ভূমি অফিস।১২টি পদের মধ্যে আছেন ২ জন। ১০টি পদই শূন্য। ব্যহত হচ্ছে ভূমি সেবা কার্যক্রমে।

উপজেলা ভূমি অফিস সূত্র জানায়, প্রধান সহকারী কাম হিসাব রক্ষক নেই। সার্টিফিকেট পেশকার নেই। নেই সার্টিফিকেট পেশকার সহকারীর পদে। নাজির কাম ক্যাশিয়ার নেই। মিউটেশন সহকারী নেই, সায়রাত সহকারী নেই। কানুনগো পদেও কেউ নেই। চেইনম্যান নেই। ২ জারিকারকের পদের একজন অবসরে গেছেন। আরেকজন যাবেন আগামী ডিসেম্বরে।

পুরো উপজেলা ভূমি অফিসটি চলছে একজন সার্ভেয়ার, একজন অফিস সহকারি কাম মুদ্রাক্ষরিক আর বৃদ্ধ এক জারীকারক দিয়ে।

অপর দিকে ৬ ইউনিয়নে ৯টি মৌজার দু‘টি ইউনিয়ন ভূমি অফিসের যাবতীয় ভূমি সেবা দিচ্ছেন একজন তহশীলদার ও একজন অফিস পিয়ন (এমএলএসএস)। বড়ঘোপ ইউনিয়ন ভূমি অফিসের তহশীলদার রিদওয়ান মোস্তফা বলেন, এ অফিসে একজন তহশীলদার, একজন সহকারী তহশীলদার ও ২ জন এমএল এসএস থাকার কথা। এ ছাড়া নতুন চালু করা ধুরুং ইউনিয়ন ভূমি অফিসের জন্য একজন সহকারী তহশীলদার ও ২ জন এমএলএসএস পদ রয়েছে। তবে ৩ পদে কেউ নেই। সপ্তাহে ২ দিন তিনি ধুরুং ইউনিয়ন অফিসে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানান তিনি।

এভাবেই কাটছে উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ভূমি সমস্যার যাবতীয় সেবা। জনবল না থাকায় ভূমি সেবায় যেমন ধীরগতি-ভোগান্তি তেমননি এ সুযোগে দালালচক্র বেশ সক্রিয়। আউটসর্সিং এর নামে দালাল চক্রটি আর্থিক ক্ষতি সাধন ছাড়াও নিরীহ ভূমি সেবা গ্রহকদের হয়রানিও কম করছেনা।

১০ কিলোমিটার দূরের গ্রাহকদের সেবা দেয়ার লক্ষ্যে ২৫ বছর পর ধুরুং ইউনিয়ন ভূমি অফিসটি চালু করলেও সেখানে জনবল দেয়া হয়নি । বড়ঘোপ ইউনিয়ন অফিসের তহশীলদার দ্বারা নামকাওয়াস্তে দেয়া হচ্ছে সেবা। এলাকাবাসীর দাবি প্রয়োজনীয় জনবল দিয়ে অফিসটি পুরোপুরি চালু করা হোক।

সদ্য যোগদান করা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জিল্লুর রহমান বলেন, উপজেলা ভূমি অফিসে জনবল সংকট মারাত্বক পর্যায়। ৮/৯টি পদ শূন্য। মাত্র ৩ জন লোক দিয়ে কি সেবা দেয়া যেতে পারে। সেবা দিতে গেলে জরুরী ভিত্তিতে জনবল লাগবে। জনবল দিতে নতুন এসেই  দু‘বার চিঠি দেয়ার কথাও জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × two =

আরও পড়ুন