কৃত্তিকা হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ 


নিজস্ব প্রতিনিধি, রাঙামাটি:

সম্প্রতি খাগড়াছড়ির দীঘিনালাতে কৃত্তিকা ত্রিপুরা নামে এক শিশুকে ধর্ষণের পর নৃশংসভাবে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। এ ঘটনার প্রতিবাদ ও হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম ও ত্রিপুরা কল্যাণ ফাউন্ডেসনের নেতাকর্মীরা।

বুধবার (১আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে সম্মিলিত ছাত্র জোটের ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে ত্রিপুরা সম্প্রদায়সহ বিভিন্ন্ ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নেতাকর্মীরা ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে অংশগ্রহণ করেন।

এ মানববন্ধনে ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম রাঙামাটি জেলার সভাপতি হৃদয় ত্রিপুরার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন- রাঙামাটি পৌর মেয়র মো. আকবর হোসেন চৌধুরী, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও ত্রিপুরা কল্যাণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক ঝিনুক ত্রিপুরা, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরামের কেন্দ্রীয় সদস্য অঞ্জুলাল ত্রিপুরা, রাঙামাটি জেলার সাধারণ সম্পাদক বিকাশ ত্রিপুরা, তঞ্চঙ্গ্যা ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক হৃতিক তঞ্চঙ্গ্যা প্রমুখ।

রাঙামাটি পৌর মেয়র মো. আকবর হোসেন চৌধুরী বলেন, যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তারা কখনো আইনের হাত থেকে রক্ষা পাবে না। এ হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের ছাড় দেওয়া যাবেনা। আমাদের দেশের প্রশাসন অনেক সচেতন। তারা অবশ্যই হত্যাকারীদের দ্রুত খুঁজে বের করে আইনে আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শান্তির ব্যবস্থা করবেন।

এর আগে শহরের কাকলী সিনেমা হল এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম ও ত্রিপুরা কল্যাণ ফাউন্ডেসনের নেতাকর্মীরা। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের চত্বরে সামনে গিয়ে মানববন্ধনে মিলিত হয়।

উল্লেখ্য, গত শনিবার (২৮ জুলাই) খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার নয়মাইল এলাকায় ধর্ষণের পর হত্যা করে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী কৃত্তিকা ত্রিপুরাকে। পরে তাদের বাড়ির নিচে জঙ্গল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামি করে দীঘিনালা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে নিহতের মা অনুমতি ত্রিপুরা

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 + nine =

আরও পড়ুন