কেপিএম বাঁচানো প্রধানমন্ত্রীর পক্ষেই সম্ভব : বিভাগীয় কমিশনার

fec-image

গ্যাস, জনবল, পাল্প, মেশিনারী, উৎপাদন, অর্থ, লোকসানসহ বিভিন্ন সমস্যা জর্জরিত নুয়ে পড়েছে এশিয়া মাহাদেশের সর্ববৃহৎ কর্ণফুলী পেপার মিলস লিঃ (কেপিএম)। মিলকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষেই তা সম্ভব।

বুধবার (২০ নভেম্বর) বিকাল ৩টায় চটগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আব্দুল মান্নান কর্ণফুলী পেপার মিলস পরিদর্শনে এসে মিলের সামগ্রিক বিষয় নিয়ে এ সব কথা বলেন। তিনি কর্ণফুলী পেপার মিল পরিদর্শনে এসে কেপিএমের কার্যক্রম ঘুরে দেখেন। তিনি বলেন, দেশকে ভালবাসতে হবে। সবার মধ্যে দেশপ্রেম থাকতে হবে। আমি চাই আমরা চাই এদেশের সন্তানদের জন্য দেশিয় তৈরি তথা কর্ণফুলী পেপার মিলের উৎপাদিত কাগজ দিয়ে বই প্রকাশ করা হোক।

পরে বিভাগীয় কমিশনার মো. আব্দুল মান্নান কর্ণফুলী পেপার মিলস লিঃ এর সামগ্রিক বিষয় নিয়ে কেপিএম অতিথি ভবনে বিকাল সাড়ে ৪টায় উপজেলা প্রশাসন, কেপিএম প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও সিবিত্রদের নিয়ে এক মতবিনিময় সভা করেন।

বক্তব্যর শুরতেই পেপার মিল এমডি ড. এম এ কাদের মিলের বিগত দিনের লাভ-ক্ষতি, জনবল, পাল্প, গ্যাস, মিলের আয়ুসস্কালসহ বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী তথা বিসিআইসি স্থানীয় সকলের সার্বিক সহযোগিতায় পূণরায় এ মিলটি ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব। প্রধান অতিথি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি চান এ মিলের বই দিয়ে বছরের শেষে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বই তৈরি হবে এবং শিশুদের হাতে সেই বই তুলে দিবে তাহলেই পূনরায় মিলটি ঘুরে দাঁড়াবে। তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বিষয়টি ভালভাবে বুঝাতে হবে তাহলেই সম্বব।

এ সময় রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক একে এম মামুনুর রশীদ, কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মফিজুল হক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশ্রাফ আহমেদ রাসেল, ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবীসহ কেপিএম প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও সিবিত্র নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 4 =

আরও পড়ুন