খাগড়াছড়িতে আলোচিত ডাকাতি ও গণধর্ষণের মামলার প্রধান আসামির দুই দিনের রিমান্ড

fec-image

খাগড়াছড়িতে আলোচিত ডাকাতি ও গণধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি মো: আমিন ওরফে নুরুল আমিনের দুই মামলায় দুই দিনের পুলিশ রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। পুলিশ পৃথক দুই মামলায় ৭ দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন জানালে বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) খাগড়াছড়ি জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রট সেঁজুতি জান্নাত’র আদালতে দীর্ঘ শুনানীর পর দুই মামলায় এক দিন
করে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ওসি তদন্ত ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো: গোলাম আপছার রিমান্ড মঞ্জুরের কথা নিশ্চিত করে বলেন, নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে অস্ত্র, ডাকাতি, মাদক ও চাঁদাবাজিসহ ৭টি মামলা রয়েছে।

এদিকে সংঘটিত নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা, গণধর্ষণের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বুধবার দুপুরে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্বারকলিপি দিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উইমেন্স রিসোর্স নেটওয়াক ও নাগরিক সমাজ।

বুধবার(২৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত আড়াই টা থেকে সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত খাগড়াছড়ি জেলার বলপাইয়া আদাম এলাকায় বিন্দু লাল চাকমার বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ৯ সদস্যের ডাকাত দলের সদস্যরা ঘরের নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকার, মোবাইল লুট করার পাশাপাশি একটি কক্ষে নিয়ে তার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারী (২৬) বেঁধে রেখে উপর্যপরি ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় ধর্ষিতা মা ২৪ সেপ্টেম্বর বিকালে ৯ অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন এবং ডাকাতির ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা করেন। পুলিশ মাত্র ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আসামিদের চিহিৃত করে চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৭ আসামিকে গ্রেফতার ও ডাকাতির মালামালসহ ডাকাতির সময় ব্যবহৃত সিএনজি অটো রিক্সাটি উদ্বার করেছে পুলিশ।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর খাগড়াছড়ির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোরশেদুল আলম, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সামিউল আলম ও সাখাওয়াত হোসেন চৌধুরী রিয়াদের আদালত ৬ আসামি ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিলেও মামলার প্রধান আসামি মো: আমিন ওরফে নুরুল আমিন জবানবন্দী দিতে অস্বীকৃতি জানায়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: খাগড়াছড়ি, গণধর্ষণ, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রট
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × four =

আরও পড়ুন