খাগড়াছড়িতে কাঠালের বাম্পার ফলন

jackfriut pic 02

দুলাল হোসেন, খাগড়াছড়ি:

এই বছর খাগড়াছড়িতে কাঠালের বাম্পার ফলন হয়েছে। খাগড়াছড়ির আট উপজেলার সাপ্তাহিক হাটগুলোতে এখন কাঠালের সমারোহ। রাস্তার দুই পাশে কাঠালের স্তুপ,ট্রাক বোঝাই কাঠাল।স্হানীয় চাহিদা পূরণ করে এই কাঠাল চলে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্হানে।

খাগড়াছড়ি বাজারের বিভিন্ন স্পট ঘুরে দেখা যায়, জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে কাঠাল চাষীরা কাঠাল বাজারে বিক্রি করতে আনছে। সাপ্তাহিক হাটের দিনে সকাল থেকেই ঢাকা, চট্টগ্রাম, কুমিল্লার, ময়মনসিংহ থেকে পাইকাররা এসে ভিড় করে। তারা এখান থেকে কাঠাল কিনে নিয়ে দেশের বিভিন্ন এলাকায় বেশি দামে বিক্রি করে। কুমিল্লা থেকে আসা কাঠাল ব্যবসায়ী মিজান জানান, খাগড়াছড়ি থেকে কাঠাল কিনে কুমিল্লা নিয়ে বিক্রি করে ভালোই লাভ হয়।

এদিকে খাগড়াছড়ি কুমিল্লাটিলার তারা মিয়া জানান, গতবারের তূলনায় এবার কাঠালের বাম্পার ফলন হয়েছে। মাত্র বিক্রি শুরু করেছি্। বর্তমানে একটি কাঠাল ৫০/৬০টাকা বিক্রি হচ্ছে।

তবে স্থানীয়দের অভিযোগ, জেলার বাইরের পাইকারদের কাঠাল ক্রয় করে নিয়ে যাওয়ায় আমাদের চড়া দামে কাঠাল কিনতে হচ্ছে।

বাংলাদেশের জাতীয় ফল কাঠাল। কাঠালের ইংরেজী নাম Jackfruit,বৈজ্ঞানিক নাম Artocarpus heterophyllus. আকারের দিক থেকে কাঠাল সবচেয়ে বড় ফল। কাঠালে প্রচুর শর্করা, আমিষ ও ভিটামিন এ’ আছে। কাঠাল একটি সুস্বাদু পুষ্টিকর রসালো ফল। দামের তুলনায় এত বেশী পুষ্টি উপাদান আর কোন ফলে পাওয়া যায়না। কাচা কাঠাল সবজি, পাকা কাঠাল ফল হিসেবে খাওয়া যায়। |

খাগড়াছড়ি পাহাড়ী কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো: সেলিম জানান, পাহাড়ে কাঠাল চাষের ব্যাপক সম্ভবনা রয়েছে। এখানের মাটি কাঠাল চাষের জন্য উপযোগী।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

4 Replies to “খাগড়াছড়িতে কাঠালের বাম্পার ফলন”

  1. Do you have a spam issue on this site; I also am a blogger, and
    I was wanting to know your situation; many of us have created
    some nice practices and we are looking to trade strategies with other
    folks, please shoot me an e-mail if interested.

  2. I’m not that much of a internet reader to be honest but your sites really nice, keep it up!
    I’ll go ahead and bookmark your site to come back later on. Cheers

  3. I got this site from my pal who shared with me regarding this
    site and at the moment this time I am visiting this web site and reading very informative posts here.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 1 =

আরও পড়ুন