খাগড়াছড়িতে বাণিজ্যিকভাবে মধু চাষ করে অনেকের ভাগ্য বদল

fec-image

খাগড়াছড়িতে এসআইডি-সিএইচটি, ইউএনডিপি’র কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের আওতায় বাণিজ্যিকভাবে মধু চাষ করে অনেকের ভাগ্য বদল হয়েছে। বসতবাড়ির আঙ্গিনা, ফলদ বাগান ও কৃষি জমিতে মৌ-মাছির বক্সে চাষ হচ্ছে মধুর। প্রশিক্ষণ ও কারিগরি সহায়তা পাওয়ায় দিন দিন বাড়ছে চাষীর সংখ্যা। প্রাকৃতিক ও ভেজালমুক্ত হওয়ায় এ মধু ভালো দামে বিক্রিও হচ্ছে।

খাগড়াছড়ির বিভিন্ন গ্রামে এখন বাণিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে মধুর। অন্য পেশার পাশাপাশি সহজ ও কম সময়ে মধু চাষে লাভবান হওয়ায় আগ্রহ বাড়ছে অনেকের। পার্বত্য চট্টগ্রাম মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এসআইডি-সিএইচটি ইউএনডিপি ও পার্বত্য জেলা পরিষদের বাস্তবায়নে প্রায় চার শতাধিক পরিবারকে মধু চাষে চাষীদের দেয়া হচ্ছে আধুনিক মানে প্রশিক্ষণ ও কারিগরি সহায়তা।

এতে করে বসতবাড়ির আঙ্গিনা থেকে শুরু করে কৃষি জমি ও ফলদ বাগানের সাথে মধু চাষ করে আর্থিকভাবে সাবলম্বী হচ্ছে পাহাড়ের অনেক পরিবার। সঠিক পরিচর্যা ও ফুল-ফল গাছের কাছাকাছি মৌ-মাছির আনাগোনা থাকলে মৌসুমে একেকটি বক্স থেকে মাসে ২-৩ বার করেও মধু সংগ্রহ করা যায়। প্রাকৃতিক ও ভেজালমুক্ত হওয়ায় এসব মধুর বাজারে চাহিদাও বেশ। মৌ বক্সে চাষ হওয়া প্রতি কেজি মধু বিক্রি হচ্ছে ১২ শ থেকে ১৫ শ টাকায়।

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় জেলার ৪শ চাষীকে দেয়া হয়েছে প্রশিক্ষণসহ প্রয়োজনীয় উপকরণ। প্রকল্পের মেয়াদ বৃদ্ধি পেলে পাহাড়ের অর্থনৈতিক চিত্র বদলে যাবে এমনি আশা সংশ্লিষ্টদের।

এসআইডি-সিএইচটি, ইউএনডিপি’র কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচির জেলা কর্মকর্তা মো. শাহজাহান আলী ভবিষ্যতেও এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখার চেষ্টা চলছে বলে জানান।

অপর দিকে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু এসআইডি-সিএইচটি, ইউএনডিপি’র কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের মৌ-মাছির বক্সে মধু চাষ প্রকল্পকে সফল দাবি করে বলেন, আমরা প্রাথমিকভাবে চারশ পরিবারকে এ প্রকল্পের আওতায় এনেছি। এ প্রকল্পনটি পাহাড়ে আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও দারিদ্র বিমোচনে সফল হয়েছে। এ কারণে আমরা প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য প্রস্তাব দিয়েছে। প্রকল্পটি চলমান থাকলে পাহাড়ের অর্থনৈতিক চিত্র পাল্টে যাবে বলে তিনি মনে করেন। তবে পাহাড়ের সচেতন মহল, এই প্রকল্পে সকল জনগোষ্ঠীকে সম্পৃত্ত করার দাবি জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: খাগড়াছড়ি, মধু চাষ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five − 2 =

আরও পড়ুন