খাগড়াছড়ির এক উপজেলা ও দুই পৌরসভা রেড জোন

fec-image

খাগড়াছড়ির দুই পৌরসভা ও একটি উপজেলাকে করোনা সংক্রমণের রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এছাড়া একটি উপজেলা ও অপর একটি পৌরসভাকে ইয়োলো জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

সোমবার (১৫ জুন) বিকেলে এ সংক্রান্ত একটি পত্র পরিচালক(স্বাস্থ্য) চট্টগ্রামে পাঠানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ডা. নুপুর কান্তি দাশ।

তিনি জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হারের বিবেচনায় জেলার মানিকছড়ি উপজেলা এবং খাগড়াছড়ি ও রামগড় পৌরসভাকে রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এছাড়াও খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভাকে ইউলো জোন এবং রামগড়, মহালছড়ি, মাটিরাঙ্গা, দীঘিনালা, পানছডড়ি, গুইমারা ও লক্ষ্মীছড়ি উপজেলাকে গ্রীন জোনের আওতায় রাখা হয়েছে।

খাগড়াছড়ি জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সূত্র মতে, খাগড়াছড়িতে(১৫ জুন) এ পর্যন্ত ৯৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। তার মধ্যে ২৭ জন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এ পর্যন্ত ১ হাজার ৩৫২ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। তার মধ্যে ফলাফল এসেছে ৯শ ৮৩ জনের।

করোনাভাইরাসের আধিক্য বিবেচনায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলকে যে তিনটি জোনে ভাগ করা হয়েছে। তার মধ্যে লাল ও হলুদ জোনে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। এছাড়া গত ৩১ মে থেকে সীমিত পরিসরে যেভাবে অফিস চলছে। গ্রীন জোনে অবস্থিত অফিসগুলো ১৬ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত সেভাবেই চলবে জানিয়ে সোমবার আদেশ জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

আদেশে বলা হয়েছে, লাল ও হলুদ অঞ্চলে অবস্থিত সামরিক বা বেসামরিক সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত, আধা-স্বয়ত্তশাসিত বা বেসরকারি দপ্তরগুলো এবং লাল ও হলুদ অঞ্চলে বসবাসকারী এসব দপ্তরের কর্মকর্তারা সাধারণ ছুটির আওতায় থাকবেন।

সবুজ অঞ্চলে সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত এবং বেসরকারি অফিস নিজ ব্যবস্থাপনায় সীমিত পরিসরে খোলা থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: খাগড়াছড়ির, রেড জোন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 2 =

আরও পড়ুন