খাগড়াছড়িতে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা এক গার্মেন্টস কর্মীর পেট ব্যথায় মৃত্যু

fec-image

খাগড়াছড়িতে গুগড়াছড়িতে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় পেট ব্যথা নিয়ে গার্মেন্টস কর্মীর মৃত্যু হয়েছে।

রবিবার(১৯ এপ্রিল) সকালে এক পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তার মৃত্যু হয়। সন্দেহ দুর করতে নমুন সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

খাগড়াছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আম্রো মারমা জানান, শনিবার রাতে ঢাকা থেকে পাঁচ গার্মেন্টস কর্মী এলাকায় গেলে তিনি তাদের এক পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করেন। উষাপ্রু মারমা নামে ওই গার্মেন্টস কর্মীর ভোর রাতে পেটে ব্যথা ওঠে ও সকাল ৯টার দিকে মারা যায়। তিনি জানান, সে দীর্ঘদিন ধরে পেট ব্যথা রোগে ভুগছিল।

খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার পূর্ণ জীবন চাকমা জানান, যেহেতু সে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে ছিলেন, সন্দেহ দূর করতে আমরা তার নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর-এ পাঠানো হচ্ছে। আর মৃত ব্যক্তির দাহও করোনা রোগীর আদলে করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

খাগড়াছড়ি স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে খাগড়াছড়িতে ২৪ ঘন্টায় নতুন ২৫২ জনসহ প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে ৪৮৯ জন ও হোম কোয়ারেন্টিনে নতুন আরও ২১২জনসহ ৩৮৬জন রয়েছে। এরা সকলেই নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন কারখানার শ্রমিক।

খাগড়াছড়ি সিভিল সার্জন ডাক্তার নুপুর কান্তি দাশ জানান, জ্বর ও কাশি নিয়ে খাগড়াছড়ি ও মানিকছড়ি হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি পাঁচ গার্মেন্টস কর্মীসহ ৪৮ নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর-এ পাঠানো হয়েছে। তার মধ্যে দুই আইসোলেশনের রোগীসহ ২৬ জনের নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে। বাকী নমুনার রিপোর্ট এখনো আসেনি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × two =

আরও পড়ুন