খাগড়াছড়ির সিন্দুকছড়ি সেনা জোনের অভিযানে ৬ লক্ষ টাকার অবৈধ কাঠ জব্দ

fec-image

খাগড়াছড়ির গুইমারা রিজিয়নের আওতাধীন সিন্দুকছড়ি সেনা জোনের অভিযানে প্রায় ৬ লাখ টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রজাতির ১২শ সিএফটি অবৈধ কাঠ আটক হয়েছে।

ভুয়া পারমিটের মাধ্যমে অবৈধভাবে খাগড়াছড়ি থেকে মাসে গড়ে কয়েক কোটি টাকার কাঠ পাচার হচ্ছে সমতলে। এসব বনজ সম্পদ সুরক্ষায় অবৈধ কাঠ পাচার ও বন নিধনকারীদের প্রতিরোধে খাগড়াছড়ির গুইমারায় যৌথ অভিযানে নেমেছে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।প্রতিনিয়ত বিভিন্ন স্থানে চলছে এসব অভিযান।

মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) ভোর রাতে সিন্দুকছড়ি জোনের সেনা সদস্যরা গুইমারা সাবজোন কমান্ডার মেজর মো. জাহিদুন্নবী চৌধুরীর নেতৃত্ব গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গুইমারা উপজেলার সিন্দুকছড়ি, বড়পিলাক ৫ নাম্বার, পশ্চিম বড়পিলাক ও বাজার এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে বিশেষ অভিযান চালিয়ে এসব অবৈধ কাঠ আটক করে। যার আনুমানিক বাজার মূল্য প্রায় ৬ লক্ষ টাকা। আটককৃত কাঠ জালিয়াপাড়া বন বিভাগে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে বন আইনে মামলা করা হয়েছে বলে জানান বন কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হাসেন।

কাঠ ব্যবসায়ী কেপায়েত উল্ল্যা এবং কাঠ ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব আলী জানান, অবৈধ ব্যবসায়ীরা রাতে বিভিন্ন স্থান থেকে পাচারের উদ্দেশ্যে এসব কাঠ নিয়ে আসে। সেনাবাহিনী সংবাদ পেয়ে অবৈধ কাঠগুলো জব্দ করেছে।

জালিয়াপাড়া রেঞ্জ কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন জানান, যৌথ অভিযানে জব্দকৃত অবৈধ কাঠ গুলো জালিয়াপাড়া বন বিভাগের নিকট হস্তান্তর হয়েছে। এ বিষয়ে বন আইনে মামলা হয়েছে। কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

বনাঞ্চল রক্ষায় সেনা অভিযান অব্যহত থাকবে জানিয়ে সিন্দুকছড়ি জোন অধিনায়ক লে. কর্নেল দেওয়ান মঞ্জুরুল হক বলেন, অবৈধ কাঠ পাচারের সাথে জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ২৫ এপ্রিল গুইমারা রিজিয়নের মাটিরাঙ্গা জোনের সেনা সদস্যরা ৪টি কাঠের ডিপোতে অভিযান চালিয়ে প্রায় অর্ধকোটি টাকা মূল্যেল সাড়ে চার ঘনফুট অবৈধ কাঠ জব্ধ করে সেনাবাহিনী।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 + 16 =

আরও পড়ুন