“ধর্মীয় এ পার্বত্যাঞ্চলে ২ যুগেরও অধিক সময় ধরে অস্থিতিশীল পরিবেশেও ধর্ম প্রচারের মাধ্যমে পাহাড়ের শান্তির বাণী প্রচার করে গেছে।”

খাগড়াছড়ি কল্যাণপুর মৈত্রী বৌদ্ধ বিহারাধ্যক্ষ’র অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন

ভদন্ত ধীরানন্দ মহাস্থবিরের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার শোকযাত্রা

 

নানা ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়ি কল্যাণপুর মৈত্রী বৌদ্ধ বিহার অধ্যক্ষ ভদন্ত ধীরানন্দ মহাস্থবিরের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে।

শুক্রবার সকাল থেকে ধর্মীয় নানা আনুষ্ঠানিকতা শোকযাত্রা, শ্রদ্ধাঞ্জলির মাধ্যমে বিকালে মৈত্রী বৌদ্ধ শ্মশানে ধর্মীয় এ গুরুর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়।

বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার উপ-সংঘরাজ ড. জ্ঞানশ্রী মহাস্থবিরের সভাপতিত্বে এতে প্রধান ছিলেন, খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হামিদুল হক।  বিশেষ অতিথি ছিলেন, খাগড়াছড়ি ডিজিএফআই’র কমান্ডার কর্নেল মো: নাজিম উদ্দিন, পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান, জেলা পরিষদ সদস্য শতরূপা চাকমা, মৈত্রী বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি কল্যাণ মিত্র বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক জীতেন বড়ুয়াসহ এতে বিভিন্ন উপজেলার বৌদ্ধ মন্দিরের ধর্মীয় গুরু, দায়ক দায়িকাসহ ভক্তরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ধর্মীই এ গুরুকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াদুদ ভূইয়া। এ সময় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ক্ষেত্র মোহন রোয়াজা, মংসাথোয়াই চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এম এন আনছার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল মালেক মিন্টু, মোশাররফ হোসেন, জেলা যুবদলের সভাপতি মাহবুবুল আলম সবুজ, সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল, জেল স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নজরুল ইসলাম ও জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল আলম।

অধ্যক্ষ ভদন্ত ধীরানন্দ মহাস্থবিরের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হামিদুল হক বলেন, ধর্মীয় এ পার্বত্যাঞ্চলে ২ যুগেরও অধিক সময় ধরে অস্থিতিশীল পরিবেশেও ধর্ম প্রচারের মাধ্যমে পাহাড়ের শান্তির বাণী প্রচার করে গেছে। তাই শান্তির এই পথ পর্দশককে আজীবন সাধারণ মানুষ শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। এর আগে প্রধান অতিথি ধর্মীয় এ গুরুকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

প্রসঙ্গত: ২১ মে ২০১৯ মঙ্গলবার দুপুরে শ্রীমৎ ধীরানন্দ মহাস্থবিরের মহাপ্রয়াণ লাভ করেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 − 1 =

আরও পড়ুন