‘গঠনতন্ত্র পরিপন্থী স্বঘোষিত সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি মেনে নেবে না উখিয়া আওয়ামী লীগ’

fec-image

দলীয় গঠনতন্ত্র পরিপন্থী স্বঘোষিত সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি মেনে নেবে না উখিয়া উপজেলার আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। আওয়ামী লীগ যখন বিরোধী দলে থাকে তখন দ্বিধা বিভক্তি থাকে না, দল ক্ষমতায় আসলেই শুরু হয় দ্বিধা বিভক্তি। ৩০ বছর আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে উখিয়ায় নৌকা প্রতীকের ১০ হাজার ভোটার থেকে ৪০ হাজারে উন্নীত করা হয়েছে। রাজনৈতিক জীবনের শেষ প্রান্তে এসে জেলা কমিটির দলীয় সংবিধান পরিপন্থি স্বঘোষিত এই মনগড়া কমিটি নিয়ে উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ আজ হতাশ।

৭ সেপ্টম্বের (সোমবার) দুপুর ১২টায় উখিয়া সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের হল রুমে উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরী বর্ধিত সভায় উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী এসব কথা বলেন।

তিনি এ সময় বলেন, দলের ভিতর ঘাপটি মেরে থাকা ষড়যন্ত্রকারীদের কারণে ৫৫ বছর বয়সে বঙ্গবন্ধুকে হারাতে হয়েছে। দীর্ঘ ত্রিশ বছর ধরে উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি। একদিনের জন্যও দলের সাথে বেঈমানি করিনি। কিন্তু আজ দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে যারা ইউপি নির্বাচন থেকে শুরু করে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিল তাদের নাম উক্ত ভিত্তিহীন কমিটিতে দেখা যাচ্ছে। এছাড়াও রোহিঙ্গা, জঙ্গি, ইয়াবা, মাদক রাজাকার পুত্র ও দুর্নীতি মামলার চার্জশীট ভূক্ত আসামিদের তথাকথিত এ কমিটিতে দেখা যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, দলের দুর্দিনে আন্দোলন সংগ্রামে আতশী কাঁচ দিয়ে খোঁজলেও সুবিধাবাদীদের দেখা যায় না। তখন রাস্তায় থাকে ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসঙ্গগঠনের কিছু নিবেদিত প্রাণ। যারা বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধুকে ভালবেসে মুজিব আদর্শ চর্চা করেন।

উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও হলদিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমিনুল হক আমিন স্বঘোষিত সম্মেলন কমিটিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, বর্তমান কমিটিকে বাদ দিয়ে একটি ইউনিয়ন কিংবা ওয়ার্ড কমিটিও করতে পারবে না এই ভুয়া কমিটি।

তিনি আরো বলেন, ইতিপূর্বে উপজেলা কমিটির নেতৃবৃন্দদের নিয়ে ১৫ বারের অধিক সময় সোনারপাড়া ও কক্সবাজারের বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে বৈঠক হয়েছে। কিন্তু সেখানেও উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটি বিলুপ্তির বিষয়ে কোন কার্যকরী সিদ্ধান্ত হয়নি।

কক্সবাজার জেলা মুক্তিযোদ্ধা লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম চৌধুরী বলেন, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক গতকাল রবিবার তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে যে বিবৃতি দিয়েছেন তাতে তিনি উল্লেখ করেছেন গত ১ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভার সর্বসম্মত সিদ্ধান্তক্রমে গত ২৭ জুলাই জেলা আওয়ামী লীগ উখিয়া উপজেলার আওয়ামী লীগের তথাকথিত সম্মেলেন প্রস্তুতি কমিটি নাকি গঠন করেছে।

তিনি বলেন, গঠনতন্ত্রে স্পষ্ট উল্লেখ আছে, জেলা কমিটির কোন সম্পাদকীয় পদে থাকাকালিন উপজেলা কমিটির কোন পদে আসার সুযোগ নাই। যদি কোন কারণে থাকলে হয় তাহলে জেলা কমিটির পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে। সুতরাং এতে বুঝা যায় উক্ত স্বঘোষিত সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি সম্পূর্ণ অবৈধ। এতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ফেসবুকের এসব গুজব নিয়ে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল আলম মাবুবু এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত জরুরী বর্ধিত সভায় অন্যান্যদের বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, মোজাফ্ফর আহমদ সওদাগর, হলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইসলাম, রত্নাপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আসহাব উদ্দিন মেম্বার, সাধারণ সম্পাদক আলমগীর মাহমুদ, জালিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ছৈয়দ আলম, পালংখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এম মঞ্জুর, রাজাপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সালাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম নুরু, অঙ্গসহযোগী সংগঠনের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মকবুল হোসেন মিথুন, উপজেলা তাঁতী লীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন, উপজেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি আনিসুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা শাহদাৎ হোসেন জুয়েল, এড. মোহাম্মদ রাসেল।

এছাড়াও ৬৭ সদস্য বিশিষ্ট উখিয়া উপজেলা কমিটির ৩জন সদস্য মৃত্যুবরণ করেছেন। বাকি সদস্যদের মধ্যে ৩৮ জন এবং ৫ ইউনিয়ন কমিটির ১০ জন সভাপতি/সম্পাদকের মধ্যে ৮জন উক্ত বর্ধিত সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সভার শুরুতে কোরআন তেলোয়াত করেন উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাফেজ জাকের আহমদ।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আওয়ামী লীগ, মুক্তিযোদ্ধা লীগ, সম্মেলন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 3 =

আরও পড়ুন