গণপরিবহনে সাড়ে ৫ বছরে ৩৫৭ জন ধর্ষণ

fec-image

গণপরিবহনে গত সাড়ে পাঁচ বছরে ৩৫৭ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন । এছাড়াও বাসস্ট্যান্ড ও ট্রেন স্টেশনগুলোতে নির্যাতনের শিকার হয়েছে আরও চার হাজার ৬শ ‍১ জন। ২০১৭-২০২২ সালের ৭ আগস্ট পর্যন্ত এ ঘটনাগুলো ঘটেছে। একই সাথে খুন হয়েছে ২৭ জন।

সোমবার (৮ আগস্ট) সেভ দ্য রোডের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে।

সেভ দ্য রোড’র মহাসচিব শান্তা ফারজানা বলেন, ৩১টি জাতীয় দৈনিক, বিভিন্ন সংবাদ সংস্থা ও টিভি চ্যানেল এবং বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় সক্রিয় সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকদের তথ্য নিয়ে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

মহাসচিব বলেন, এক শ্রেণির কুরুচিপূর্ণ মানুষ নারীদের পোশাক ও চলাফেরা নিয়ে যেমন কটূক্তি করে, ঠিক তেমনি নির্যাতন-নিপীড়ন করতেও এসব লোক পিছপা হয় না। অবস্থা রয়েছে ট্রেন, লঞ্চঘাট বা বিমান বন্দরেও। এসব ঘটনায় হিজাব পরিহিত নারীরাই সবচেয়ে বেশি নির্যাতন-নিপীড়নের শিকার হয়েছেন।

প্রতি ১০০ জন নারীর মধ্যে ৯৯ জন নিপীড়নের শিকার হন মন্তব্য করে শান্তা ফারজানা আরও বলেন, এসব ঘটনার নেপথ্য কারণ পুরুষদের হীন মানসিকতা, ধর্মীয় অনুশাসন না মানা এবং বিচারহীনতার সংস্কৃতিই এর জন্য দায়ী।

সংগঠনটি প্রতিবেদনে তিনটি সুপারিশ করে। তাদের মতে, রাষ্ট্রীয়ভাবে নারীর প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান প্রদর্শনে সব শ্রেণি পেশার মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে ‘নারী প্রতি সম্মান’ শীর্ষক সচেতনতা তৈরি করা। সেখানে ধর্মীয় অনুশাসন, নীতি, আদর্শ, সভ্যতার আলোকে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরতে হবে। এসব বিষয় গণমাধ্যমে প্রচার এবং পাঠ্যবইতে সংযুক্ত করা।

মালিক, চালক, হেলপার, সুপারভাইজারসহ সংশ্লিষ্টদের অবশ্যই যাত্রীদের প্রতি আচরণ বিষয়ে প্রশিক্ষণ এবং অসদাচরণ করলে শাস্তির বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া।

সড়কে প্রতি ৫ কিলোমিটার অন্তর পুলিশ বুথ স্থাপন, সব সড়ক, মহাসড়ক ও সেতুতে সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপন করা।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 4 =

আরও পড়ুন