গুইমারায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের কর্মচারীদের অর্ধদিবস কর্মবিরতির ৩য় দিন

fec-image

সারা দেশের ন্যায় খাগড়াছড়ির  গুইমারা উপজেলাতেও জনবল কাঠামো ও নিয়োগবিধি বাস্তবায়নসহ ৫ দফা দাবিতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরে

(পিআইও) কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অর্ধদিবস কর্মবিরতি পালনের আজ ৩য় দিন চলছে।

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সংযুক্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের ব্যানারে গুইমারা উপজেলা কার্যালয়ে এই কর্মবিরতি পালন হয় ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার (পিআইও) ইসতিয়াক আহমেদ ,উপসহকারী প্রকোশলী মিলন চাকমা প্রমুখ।

গুইমারা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার (পিআইও) ইসতেয়াক আহমেদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত ধরে ১৯৭২ সালে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের যাত্রা শুরু করে।এধিদপ্তরের লোকবল আপামর জনসাধারণকে তৃণমূল পর্যায়ে সেবা দিয়ে থাকে ।দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন ২০১২ কার্যকর হয়েছে প্রায় এক যুগ আগে। অথচ এর আওতায় কর্মরত জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা (ডিআরআরও) এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাদের (পিআইও) জনবলকাঠামো ও নিয়োগবিধি এখনো অনুমোদন হয়নি। পদ দুটির উন্নীতকরণ প্রস্তাবও পড়ে আছে মন্ত্রণালয়ে। ফলে ডিআরআরও এবং পিআইওরা প্রত্যাশিত আর্থিক সুবিধা আমরা পাচ্ছি না।

এ অধিদপ্তরের কেন্দ্রীয় সূত্রে জানা যায়, যদি এর মধ্যে যৌক্তিক দাবিগুলো আদায় না হয় তাহলে পরবর্তী কর্মসূচি প্রণয়নের লক্ষ্যে আগামী শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) পুনরায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সংযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের সভা আহবান করে আরও কঠোর কর্মসূচিতে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

উপসহকারী প্রকোশলী মিলন চাকমাসহ বলেন, ‘দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর সৃষ্টির পর থেকে যে জনবল ছিল,এখনো তাই আছে। যে কারণে আমাদের পদবী উন্নয়ন হয়নি।’

উল্লেখ্য, সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এই কর্মবিরতি পালন শুরু হয়েছে।এই কর্মবিরতি চলবে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। কর্মবিরতির কারণে উপজেলাভিত্তিক এ অধিদপ্তরটির কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে।

সেবাগ্রহীতা উগ্যজাই মারমা জানান, সরকার দপ্তরটির দাবি মেনে নিলে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি শেষ হবে।এভাবে কর্মবিরতি চললে সাধারণ মানুষের জন্য সেবা পাওয়া কষ্টকর হয়ে পড়বে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

6 + 15 =

আরও পড়ুন