গুইমারায় নানা আয়োজনে পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২২তম বর্ষপূর্তি উদযাপন

fec-image

আনন্দ শোভাযাত্রা, শান্তিমেলা ও শান্তি কনসার্টসহ নানা আয়োজনে পার্বত্য জেলার গুইমারায় পালিত হয়েছে ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২২তম বর্ষপূর্তি। দিবসটি উপলক্ষ্যে সোমবার (২ ডিসেম্বর) সকালে জেলার গুইমারাতে সেনাবাহিনীর ২৪ আর্টিলারী ব্রিগেড, গুইমারা রিজিয়নের উদ্যোগে স্কুল মাঠ থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পরে আর্মি ষ্টেডিয়ামে গিয়ে আলোচনা সভার মাধ্যমে শেষ হয়।

এ সময় বেলুন ও শান্তি পায়রা উড়িয়ে বর্ষপূর্তির শুভ উদ্বোধন করেন গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেড়িয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শাহরিয়ার জামান। র‌্যালিতে গুইমারা ও মানিকছড়ি উপজেলার কয়েক হাজার পাহাড়ি-বাঙ্গালী অংশগ্রহণ করেন। পরে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিজিবি’র গুইমারা সেক্টর কমান্ডার কর্নেল মোঃ আবুদল হাই, সিন্দুকছড়ি জোন অধিনায়ক লেঃ কর্নেল রুবায়েত মাহমুদ হাসিব, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তুষার আহামেদ, গুইমারা সদর ইউপি চেয়ারম্যান মেমং মারমা, হাফছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান চাইথোয়াই চৌধুরী প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা শান্তিচুক্তির বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বলেন, পাহাড়ে ইতিমধ্যে শান্তিচুক্তির ফলে পাহাড়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের অবসান ঘটিয়ে শান্তির সুবাতাস বইতে শুরু করেছে। বর্তমান সরকার ও নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা শান্তির এ প্রক্রিয়াকে অব্যাহত রাখতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য চুক্তির বাস্তবায়ন নিয়ে একটি মহল অপ্রপচার চালিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। সব সময় সরকারের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে তারা। তাই সবাইকে সজাগ থাকার আহবান জানান বক্তারা।

উল্লেখ্য, পার্বত্য অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে ১৯৯৭ সালের ২রা ডিসেম্বর আওয়ামী লীগ সরকার ও পার্বত্য চট্রগ্রাম জনসংহতি সমিতির মধ্যে শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় প্রতি বছর ২ ডিসেম্বর নানা আয়োজনে দিনটি পালন করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পার্বত্য, শান্তিচুক্তি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − 18 =

আরও পড়ুন