চকরিয়ায় অস্ত্রসহ ৪ সন্ত্রাসী গ্রেফতার

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় চিংড়ি ঘের দখল ও অপহরণকারী চক্রের মূলহোতাসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দেশীয় বন্দুক ও গুলিসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) দুপুরে র‍্যাব-১৫, কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন, র‍্যাব সদর দপ্তরের পরিচালক (আইন ও গণমাধ্যম ) কমান্ডার আরাফাত ইসলাম।

আটকরা হল, চকরিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা আকবর আহম্মদের ছেলে বেলাল হোসেন (৪৫), তার ভাই কামাল আহম্মেদ (৪২) ও আব্দুল মালেক (৩২) এবং মৃত জহির আহম্মেদের ছেলে নুরুল আমিন (৩৫)।

র‍্যাব জানিয়েছে, আটকদের মধ্যে নুরুল আমিন ছাড়া অপর তিনজনই আপন সহোদর। তারা সংঘবদ্ধ একটি ডাকাতদলের সদস্য। এসব অপরাধীরা ‘বেলাল বাহিনী’ নামের ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দল গড়ে তুলে মৎস্য ঘের জবরদখল, লুট ও অপরহণসহ নানা অপরাধ সংঘটন করে আসছিল।

কমান্ডার আরাফাত ইসলাম বলেন, ‘সোমবার মধ্যরাতে চকরিয়ার উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নের কোরালখালী এলাকায় কতিপয় অস্ত্রধারী লোকজন মৎস্য ঘের দখল ও লুটপাটের উদ্দ্যেশে জড়ো হয়েছে খবরে র‍্যাবের একটি দল অভিযান চালায়। পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে সন্ত্রাসীদের অবস্থান করা সন্দেহজনক এলাকাটি ঘিরে ফেললে র‍্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে ৮-১০ জন লোক দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা চালায়। এসময় ধাওয়া দিয়ে ৪ জনকে আটক করতে সক্ষম হলেও অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে আটকদের দেওয়া তথ্য মতে, ঘটনাস্থলের আশপাশে তল্লাশি চালিয়ে দেশীয় ১০টি বন্দুক ও বিভিন্ন ধরণের ৫২টি গুলি উদ্ধার করা হয়।’

র‍্যাবের এ কর্মকর্তা বলেন, ‘আটকরা সকলে চিহিৃত ডাকাতদল বেলাল বাহিনীর সক্রিয় সদস্য। আটকদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ডাকাতি, খুন ও অপহরণসহ নানা অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে। ’

আটকদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে চকরিয়া থানায় মামলা করা হয়েছে বলে জানান কমান্ডার আরাফাত ইসলাম।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অস্ত্র উদ্ধার, চকরিয়া, সন্ত্রাসী গ্রেফতার
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন