চকরিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যানের গরু চুরি

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় গভীর রাতে এক ইউপি চেয়ারম্যানের গোয়াল ঘরে চোরের দল হানা দিয়ে গৃহপালিত ৫টি গরু চুরি করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার ভোররাতে উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নস্থ বালুরচর এলাকায় চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের গোয়াল ঘরে এ চুরির ঘটনা ঘটে।

সূত্রে জানাগেছে, ডুলাহাজারা ইউনিয়নস্থ বালুরচর এলাকায় চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের গোয়াল ঘরে গভীররাতে হানা দেয় একদল দুর্বৃত্ত চোর। এসময় গোয়াল ঘরে থাকা বড় আকারের গৃহপালিত বলদ ও গাভীসহ ৫টি গরু চুরি করে নিয়ে যায়। চুরিকৃত ৫টি গরুর দাম অন্তত সাড়ে ৫ লক্ষাধিক টাকা হবে বলে জানা গেছে। ঘটনার দিন সকালে চুরির ঘটনা জানাজানি হলে গরুর মালিকসহ স্থানীয়রা
সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও আজ (শনিবার) রাত ৮টা পর্যন্ত এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত চোরাইকৃত গরুর কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, কিছুদিন আগেও ওই এলাকাসহ পাশ্ববর্তী গ্রাম থেকে দুটি গরু গোয়াল ঘর থেকেও চুরি করে নিয়ে যায়। অদ্যবধি এসব গরুরও এখনো কোন সন্ধান মেলেনি। সম্প্রতি এলাকায় গরু চোরের উপদ্রব বেড়ে গেছে। এভাবে গরু চুরি বেড়ে গেলে এলাকার সাধারণ মানুষ গরু লালন-পালন থেকে দূরে সরে যাবে। এনিয়ে প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ চেয়েছেন এলাকাবাসী।

ডুলাহাজারা ইউপি চেয়ারম্যান ও গরুর মালিক নুরুল আমিন জানান, শুক্রবার ভোররাতে আমার বসতঘরের পাশে পুকুর পাড়ে লাগোয়া গোয়াল ঘর। ওই গোয়াল ঘরে আমার শখের বশে পালিত ৫টি গরু গভীর রাতে চুরি করে নিয়ে যায়। যার আনুমানিক মূল্য কয়েক লক্ষ টাকার মত হবে। শনিবার সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকায় চুরি হয়ে যাওয়া গরু গুলি খোঁজাখুজি করেও এখনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। গরু চুরির ঘটনা বিষয়ে থানায় এজাহার দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, গরু চুরির ঘটনার বিষয়টি এখনো কেউ আমাকে অবহিত করেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত প্রদক্ষেপ নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 − six =

আরও পড়ুন