চকরিয়ায় ইয়াবাসহ নগদ টাকা উদ্ধার: পুলিশ কনস্টেবলসহ গ্রেফতার ২

fec-image

চকরিয়া থানা পুলিশ ইয়াবা বড়ির লেনদেনকালে এসবি পুলিশের কনস্টেবেলসহ দুইজনকে আটক করেছে । এ সময় তাদের কাছে থেকে ১৯৫ পিস ইয়াবা ও নগদ ৩ লাখ ৫০হাজার টাকা এবং তিনটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার (১ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১২টার দিকে চকরিয়া পৌরশহরের হাসপাতাল সড়কের পাশে একটি আবাসিক হোটেলে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাজহুরুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম এ অভিযান চালায়।

গ্রেপ্তারকৃত হলেন, দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর থানার তালপুকুর এলাকার আজিজা রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান ও ঢাকার রামপুরার পূর্ব হাজিরপাড়া এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে ফয়েজ আহমদ ডাবু। আটক পুলিশ কনস্টেবল মো. মেহেদী হাসান অন্য একটি অপরাধে ২০১৭ সালে চাকুরীচ্যুত হয় বলে নিশ্চিত করেন থানা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চকরিয়া পৌর শহরের একটি আবাসিক হোটেলে ইয়াবা বেচাকেনা হচ্ছে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক অভিযান চালানো হয়। ওই সময় ওই হোটেলের একটি কক্ষ থেকে ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ মেহেদী ও ফয়েজ আটক করা হয়।

সূত্র জানায়, এসবির কনস্টেবল মেহেদী হাসান ২০১৭ সালে পুলিশ কনস্টেবল পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত হয়ে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। তিনি প্রায় সময় কক্সবাজার থেকে মাদক নিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করত। চকরিয়া থেকেও মাদক কিনতে এসে অবশেষে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে।

চকরিয়া থানার অপারেশন অফিসার মো. রুহুল আমিন বলেন, আটককৃতদের মধ্যে ধৃত মেহেদী পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে নিজেকে এসবির কনস্টেবল ও ঢাকায় কর্মরত বলে দাবি করেন। আজ শনিবার সকালে তার স্ত্রী চকরিয়া থানায় এসে স্বামীকে সনাক্ত করেন।

ওই সময় স্ত্রী বলেন, আমার স্বামীর বাড়ি দিনাজপুর হলেও দীর্ঘদিন ধরে ঢাকার রামপুরায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করছি। গত বৃহস্পতিবার আমার স্বামী ৫লাখ টাকা নিয়ে মোটরসাইকেল কিনতে বাসা থেকে বের হয়। গতকাল শুক্রবার মধ্যরাতে খবর পাই চকরিয়া থানা পুলিশ আমার স্বামীকে আটক করেছে। খবর শোনে রাতেই বাসে উঠে সকালে চকরিয়া থানায় আসি। তার স্বামী দুই বছর ধরে বরখাস্ত অবস্থায় রয়েছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাজহুরুল ইসলাম বাদী হয়ে মাদক আইন মামলা দায়ের করেছেন। গ্রেপ্তারকৃত দুজনকে আজ শনিবার আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × four =

আরও পড়ুন