চকরিয়ায় চিংড়িঘেরে ডাকাতের গুলিতে ঘের কর্মচারী নিহত: ২ ডাকাত গ্রেফতার

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় চিংড়ি ঘেরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু’ডাকাত দলের গোলাগুলিতে ছৈয়দুল করিম (৩৫) নামের এক ঘের কর্মচারী নিহত হয়েছে।

রবিবার (১৫ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের বহলতলি এলাকার বড়মসজিদস্থ মৌলভী হারুনের ঘোনার বেড়িবাঁধের পাশ থেকে নিহত ঘের কর্মচারীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত ঘের কর্মচারী ছৈয়দুল করিম খুটাখালী ইউনিয়নের মেধাকচ্ছপিয়া এলাকার ফজল করিমের ছেলে। পুলিশ এ ঘটনায় অভিযান চালিয়ে ২ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে বলে সূত্রে জানা যায়।

জানা গেছে, শনিবার ভোররাত আনুমানিক তিনটার দিকে খুটাখালী ইউনিয়নের বহলতলী ঘোনায় আজিজ ও সেলিমের গ্রুপের মধ্যে চিংড়ি জোন এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গোলাগুলি হয়।

এ সময় তাদের এলোপাতাড়ি গুলিতে পালিয়ে যাওয়ার সময় ঘের কর্মচারী ছৈয়দুল করিমসহ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হয়।

রবিবার সকালে হারুন মৌলভীর ঘোনার বেড়িবাঁধের পাশে তার লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে চকরিয়া থানার ওসি মো. বখতিয়ার উদ্দীন চৌধুরীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করেন।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে প্রাথমিক সুরুতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

পরে থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর নির্দেশে থানার এসআই সুকান্ত চৌধুরী ও আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে আবদুল আজিজ (৩৬) ও চিরিংগা ইউনিয়নের পালাকাটা এলাকা থেকে মোকতার আহমদ (৩৫) নামের দুই ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিহতের ছোটভাই জিয়াউল হক জানায়, বিগত কয়েকমাস ধরে বহলতলী ঘোনায় বড়ভাই ছৈয়দুল করিম মাসিক বেতনে ঘের শ্রমিক হিসাবে কাজ নেয়। শনিবার ভোররাতে একদল ডাকাত ঘেরে হামলা দেয়। ধারনা করা হচ্ছে ওই সময় ছৈয়দুল করিম ডাকাতের গুলিতে নিহত হয়েছেন।

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, খুটাখালীতে চিংড়িঘেরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই ডাকাতদলের মধ্যে গোলাগুলি হয়। রবিবার সকালে চিংড়িঘেরের পাশে লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা খবর দেয়। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ছৈয়দুল করিম নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করি।

তিনি আরও বলেন, নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে বলে তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 1 =

আরও পড়ুন