চকরিয়ায় চিংড়ি ঘেরে গুলিবর্ষণ হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় মামলা

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় ১৭৬ একরের একটি চিংড়ি ঘেরে এবং লবণচাষ প্রকল্পে গুলিবর্ষণ করে সশস্ত্রী হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় ৪৩ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছে।

সোমবার (০৪জানুয়ারী) বিকালে চকরিয়া পৌরসভার ৬নম্বর ওয়ার্ডের কাহারিয়া ঘোনা এলাকার আনোয়ার হোছন ছেলে ও চিংড়ি ঘেরের ইজারাদার (বর্গাচাষী) ক্ষতিগ্রস্ত জমির উদ্দিন বাদী হয়ে থানায় এ মামলা দায়ের করেন। চকরিয়া থানায় যার মামলা নম্বর-১০/১০।

এতে দায়েকৃত মামলায় চকরিয়া পৌরসভার ৬নম্বর ওয়ার্ডের কাহারিয়া ঘোনা এলাকার ছৈয়দ কফির ছেলে শিব্বির আহমদকে প্রধান আসামি করে ২৩ জনের নাম উল্লেখ করে আরও ২০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার খুটাখালীস্থ হাজী আলিম উদ্দিন চৌধুরী ওয়াকফ্ এস্টেট মতোয়াল্লী সোলতান গনি চৌধুরীর মালিকানাধীন চড়া ঘোনাস্থ ১৭৬একর বিশিষ্ট চিংড়ি ও লবণচাষ প্রকল্পটি বর্গা চাষা হিসেবে ইজারা নেন চকরিয়া পৌরসভার দক্ষিণ কাহারিয়া ঘোনা এলাকার আনোয়ার হোছনের পুত্র জমির উদ্দিন গং। দীর্ঘ ৮বছর ধরে মৎস্য প্রকল্পটি প্রকল্পের মালিকের কাছ থেকে বছর বছর খাজনা দিয়ে বর্গা চাষা হিসেবে লাগিয়ত নিয়ে চিংড়ি প্রকল্পে মাছ ও লবণ চাষ করে আসছিল জমির উদ্দিন গং। গত বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে একদল স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী ও ভূমিদস্যু অতর্কিতভাবে চিংড়ি ঘেরে ঢুকে পনের রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে চিংড়ি ঘেরের বেড়িবাঁধ কেটে দিয়ে খামার বাসায় তান্ডব ও লুটপাট চালায়। এ সময় দুইজন ঘের কর্মচারীসহ প্রকল্পের বর্গা চাষাকে মারধর করে ঘেরের বাসায় থাকা আইপিএস, ব্যাটারী, জাকি জাল ৬টি, বিহিঙ্গী জাল ৬টি, পাম্প মেশিন ৮টি, নলকূপের গর্দনা, স্লুইচ গেইটের কাঠসহ বিভিন্ন রকমের সরঞ্জামাদি মালামাল লুট করে ইঞ্জিণ বোটে করে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনার পরের দিন চিংড়ি ঘেরে বর্গাচাষা ক্ষতিগ্রস্ত জমির উদ্দিন বাদী হয়ে থানায় এজাহার দায়ের করেন।

মামলার বাদী জমির উদ্দিন বলেন, খুটাখালীস্থ হাজী আলিম উদ্দিন চৌধুরী ওয়াকফ্ এস্টেট মতোয়াল্লী সোলতান গনি চৌধুরীর মালিকানাধীন চড়া ঘোনাস্থ ১৭৬একর বিশিষ্ট চিংড়ি ও লবণচাষ প্রকল্পটি বর্গা চাষা হিসেবে ইজারা নিয়ে দীর্ঘ ৮বছর ধরে মাছ ও লবণ চাষ করে আসছিলাম। গত বৃহস্পতিবার রাতে ৩০/৩৫ জনের একদল স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী অতর্কিত চিংড়ি ঘেরে ঢুকে পনের রাউন্ড মতো ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে ঘেরের বেডিবাঁধ কেটে ও বাসার টিন কেটে হামলা ও লুটপাট চালায়।

এসময় তারা চিড়ি ঘের থেকে অন্তত ১৫ লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন মালামাল লুট করে নেয় এবং প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি সাধন হয়। এ ঘটনায় থানায় ২৩ জনের নাম উল্লেখ করে আরও ২০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

চিংড়ি ঘেরে হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় মামলা দায়ের ব্যাপারে চকরিয়া থানার (ওসি) শাকের মোহাম্মাদ যুবায়ের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত ঘের মালিকদের পক্ষ থেকে লিখিত এজাহার দেয়া হলে ঘটনার বিষয়টি তদন্তপূর্বক মামলা হিসেবে রুজু করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ টিম মাঠে করছে বলে তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চকরিয়ায়, মামলা, লুটপাটের
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nine − 8 =

আরও পড়ুন