চকরিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে অর্ধশত স্থাপনা উচ্ছেদ, ৪ একর জায়গা উদ্ধার

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় অভিযান চালিয়ে জেলা প্রশাসনের ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত জায়গা থেকে অর্ধশত অবৈধ দোকানপাট ও স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে উপজেলা প্রশাসন।

এছাড়াও প্রশাসন অভিযানে অবৈধভাবে দখলে থাকা কোটি টাকা মূল্যের ৪ একর সরকারি জায়গা দখলদারদের হাত থেকে দখলমুক্ত করে।

এসময় প্রশাসনের নেতৃত্বে থাকা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মহেশখালী চ্যানেল থেকে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধ বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত মেশিন গুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাহাত উজ জামান এ অভিযান পরিচালনা করেন।

শনিবার (১৭ সেপ্টেস্বর) সকাল সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত উপজেলার উপকূলীয় বদরখালী ফেরিঘাট এলাকায় এ উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।

সূত্রে জানা গেছে, এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম সমবায়ী প্রতিষ্ঠান বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির নির্বাচন আগামী ২৪ সেপ্টেস্বর অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত নির্বাচনকে ঘিরে উপকূলীয় বদরখালী ফেরিঘাট এলাকায় বদরখালী সমিতির কর্মকর্তা, কর্মচারী ও জনপ্রতিনিধিদের যোগসাজসে জেলা প্রশাসনের ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত জলাভূমি জোরপূর্বক জবর দখল করে স্থাপনা নির্মাণে মেতে উঠে। সরকারি জায়গা জবর-দখলের বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসলে শনিবার সকালে ইউএনও নির্দেশে উচ্ছেদ অভিযান চালায় প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাহাত উজ জামান।

এসময় প্রশাসন অবৈধ নির্মিত অর্ধশত দোকানপাট ও স্থাপনা উচ্ছেদ করে অবৈধ দখলে রাখা কোটি টাকা মূল্যের ৪ একর সরকারি জলাভূমি দখলদারদের হাত থেকে দখলমুক্ত করে প্রশাসনের সাইন বোর্ড টাঙ্গিয়ে দেয়া হয়। ইতিপূর্বেও উপজেলা প্রশাসন ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ১০ একর জায়গা দখলমুক্ত করে সাইন বোর্ড টাঙ্গিয়ে দেয়া হলেও জেলা প্রশাসনের সাইনবোর্ডটি গায়েব করেন দখলবাজ চক্ররা। প্রশাসনের অভিযানকালে প্রভাবশালী দখলবাজরা আত্মগোপনে চলে যায়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাহাত উজ জামান অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বদরখালী এলাকায় জেলা প্রশাসনের খাস খতিয়ানভুক্ত জায়গা থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে এ পর্যন্ত প্রায় ১৪ একর সরকারি জায়গা দখলমুক্ত করা হয়। উদ্ধারকৃত এসব জায়গায় প্রশাসনের সাইন বোর্ড টাঙ্গিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রশাসনের এ উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চকরিয়া, জায়গা উদ্ধার, স্থাপনা উচ্ছেদ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − 3 =

আরও পড়ুন