Notice: Trying to get property 'post_excerpt' of non-object in /var/www/vhosts/parbattanews.com/httpdocs/wp-content/themes/artheme-parbattanews/single.php on line 53

Notice: Trying to get property 'guid' of non-object in /var/www/vhosts/parbattanews.com/httpdocs/wp-content/themes/artheme-parbattanews/single.php on line 55

চকরিয়ায় ভাগিনার ছুরিকাঘাতে মামা নিহত: আটক-১

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় মামাতো বোনের সাথে তোলা পুরনো প্রেমের ছবি ফেসবুকে দেয়ায় বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে নুরুল আবছার (৪৫) নামের এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে তার ভাগিনা জাকির আলম।

মামা নুরুল আবছারকে হত্যার পর জাকিরকে বোরকা পরিয়ে পালিয়ে যেতে সহায়তা করায় তার স্ত্রী হোসনে আরা বেগম (২০)কে আটক করেছে পুলিশ।

১৩জুন (বুধবার) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলা ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডস্থ ভাঙ্গারপাড়া নামক এলাকায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। নিহত নুরুল আবছার ওই এলাকার আব্বাস আহমদের ছেলে বলে সূত্রে জানায়।

স্থানীয় ও নিহতের আত্মীয়রা জানান, প্রায় ৫বছর পূর্বে জাকিরের মায়ের চাচাতো ভাই নুরুল আবছারের মেয়ের সাথে প্রেম ছিলো জকির আলমের। ওইসময় প্রেমের সম্পর্কের সুবাধে উভয়ে কয়েকটি ছবিও তুলেছিল। প্রেম চলাকালেই প্রথমে জাকির অন্যত্র বিয়ে করে সংসার করছিল। পরে প্রেমিকের মামাতো বোনের বিয়ে হলে পুরনো প্রেমের ছবি ফেসবুকে আপলোড করে জাকির। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছবি দেয়ার বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে মামা নুরুল আলম তার ভাগিনা জাকিরের সাথে। বুধবার দুপুরের দিকে মামা-ভাগিনার দু’জনের তর্কাতর্কি এক পর্যায়ে ভাগিনা জাকির তার মামা নুরুল আলমকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে।খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে।

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, প্রেমের সম্পর্কের ঘটনার জের ও ফেইসবুকে ছবি দেয়ার ঘটনা নিয়ে মামা-ভাগিনার বাকবিতণ্ডা নিয়ে এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়।পুলিশ লাশ উদ্ধার করে নিহতের প্রাথমিক সুরুতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 − 8 =

আরও পড়ুন