চকরিয়ায় ভুয়া ডাক্তার গ্রেফতার, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে মাঈন উদ্দিন নামে এক ভুয়া ডাক্তারকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতার করেছে। তার আসল নাম ফরিদ উদ্দিৃন হলেও এতোদিন নিজেকে পরিচয় দিয়ে আসছিল মাঈন উদ্দিন নামে। ভুয়া এই ডাক্তারের বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে। ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে নিয়োগ পাওয়ার আগেই ভ্রাম্যমাণ আদালতের হাতে ধরা পড়েছেন তিনি।

সোমবার (১৬ মে) সকালের দিকে চকরিয়া পৌর বাস টার্মিনালস্থ সিটি হাসপাতালে ভুয়া কাগজপত্র নিয়ে নিয়োগের জন্য আসলে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করেন।

সিটি হাসপাতালের ব্যবস্থাপক জানান, তিনি (ভুয়া ডাক্তার) গত ১৪ মে ২২ইং তারিখে সিটি হাসপাতালে নিয়োগের ভাইবা দিতে আসেন এবং কাগজপত্র দাখিল করেন। সার্টিফিকেট যাচাই শেষে তার নিয়োগ দেয়া হতো এবং তিনি এখনো রোগী দেখা শুরু করেননি। অভিযুক্ত ব্যক্তি পূর্বে চকরিয়া ও পেকুয়ায় আরো দুই জায়গায় প্র‍্যাক্টিস করায় তারা সন্দেহ করেন নি।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, চকরিয়া পৌর বাস টার্মিনাল এলাকায় সিটি হাসপাতালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ফরিদ উদ্দিন নামীয় এক ব্যক্তি (ডা. মাঈন উদ্দিন বলে পরিচয় দিচ্ছিলেন) ভূয়া সনদের মাধ্যমে নিজেকে ডাক্তার বলে পরিচয় দেন। এ সময় আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাহাত উজ জামান এবং সঙ্গে থাকা চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার তার কাগজপত্র যাচাই করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও মেডিকেল অফিসার কাগজপত্র যাচাই করে দেখলে তা সঠিক নয় মর্মে নিশ্চিত হই। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ( মাঈন উদ্দিন) স্বীকার করেন তিনি জালিয়াতি করেছেন এবং সনদগুলো ভুয়া।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) রাহাত উজ জামান বলেন, চকরিয়া সিটি হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে মাঈন উদ্দিন নামে এক ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে ১ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এছাড়াও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাসের অতিরিক্ত বিনাশ্রম সাজা প্রদান করা হয়। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান চলমান থাকবে বলে তিনি জানান।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে চকরিয়া থানা পুলিশ, আনসার সদস্য, হাসপাতালের চিকিৎসক ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার, চকরিয়া, জরিমানা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − eight =

আরও পড়ুন