চকরিয়ায় মাদক, ইভটিজিং ও বাল্যবিবাহ নিরোধে পুলিশের সভা

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় থানা পুলিশের উদ্যোগে উপজেলার হারবাং শাক্যমুনি উচ্চ বিদ্যালয়ে “আমরাও হবো ফুলের মতো সবার জীবনে সুরভী ছড়াবো” শীর্ষক সচেতনতামূলক মাদক, জঙ্গিবাদ, ইভটিজিং ও বাল্যবিবাহ নিরোধ সংক্রান্ত এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) দুপুরে হারবাং শাক্যমনি উচ্চ বিদ্যালয়ের হলরুম মিলনায়তনে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চাহ্লা প্র ‘র সভাপতিত্বে এ সচেতনতামূলক সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মোঃ মতিউল ইসলাম।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, দেশে এক শ্রেণীর লোক আছে, যারা ধর্মের নাম ব্যবহার করে ধর্মকে পুঁজি করে জঙ্গিবাদ ও নাশকতা চালিয়ে দেশে অস্থিতিশীল একটি ভয়ানক পরিস্থিতি সৃষ্টি করে তারা কখনো ইসলামের আদর্শ হতে পারে না। স্কুল, কলেজগামী শিক্ষার্থীদেরকে নানা ধরণের ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে পথভ্রষ্ট করে জঙ্গিবাদের দিকে আকৃষ্ট করে তাদের বিরুদ্ধে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

তিনি বলেন, গুজবে কখনো কান দিবেন না, মিথ্যা তথ্য দিয়ে গুজব নিয়েও দেশে ভয়ানক পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছিল। কিন্তু দেশের জনগণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি ও প্রশাসনের কঠোর নজরদারির কারণে তা রোধ করতে সরকারের ভুমিকা ছিল প্রশংসনীয়। এছাড়াও দেশের চলমান পরিস্থিতিতে মাদক নামক জিনিষটা সর্বত্রে ছড়িয়ে পড়ছে। এ ভয়াবহ মাদকের নেশায় উঠতি বয়সের স্কুল, কলেজগামী শিক্ষার্থী ও তরুণ সমাজ দিনদিন অপকর্মে জড়িয়ে পড়ছে। এ ব্যাপারে প্রতিটি মা-বাবা, শিক্ষকদের তাদের ছেলে-মেয়ে ও সন্তানদের চলাফেরা, আচরণ কর্মকান্ডের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে।

সচেতনতামূলক এ অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক ছিলেন চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) তদন্ত এ. কে এম সফিকুল আলম চৌধুরী। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বর্তমানে দেশে সব চেয়ে মারাত্মকভাবে তরুণেরা ধাবিত হচ্ছে মাদকের নেশায়। এ মাদক রোধ করতে প্রথমে এগিয়ে আসতে হবে স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীকে।যে সমস্ত শিক্ষার্থীরা পড়া-লেখা অধ্যায়নরত রয়েছে তাদের সহপাঠীদের মেলামেশায় লোভে পড়ে অনেকেই কিশোর বয়সে এ মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। মাদক সম্পর্কে তাদের কোন ধারণাও থাকেনা। এ বিষয়ে সকল শিক্ষার্থীকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, সমাজ ও দেশ পরিবর্তনে বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা সুন্দর একটি রাষ্ট্র বিনির্মাণে বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে। যার যার অবস্থান থেকে এলাকায় বাল্যবিবাহ, মাদক, ইভটিজিংসহ যে কোন ধরণের অপরাধ কর্মকান্ড চোখের নজরে পড়লেই সাথে সাথে আইনশঙ্খলা বাহিনী ও জনপ্রতিনিধিকে অবগত করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সমীর চন্দ্র সরকার, সাংবাদিক এ. কে. এম নাছির উদ্দিন, হারবাং ইউপি সাবেক মেম্বার মনজুর আলমসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ, অভিভাবকসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পুলিশ, পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ, শাক্যমনি উচ্চ বিদ্যালয়
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × two =

আরও পড়ুন