চকরিয়া খুটাখালীতে চলছে পাহাড় কেটে অবৈধ বসতি নির্মাণ

fec-image

কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীতে নির্বিচারের চলছে পাহাড় কেটে অবৈধভাবে বসতি নির্মাণ। দিনের পর দিন এভাবে বনবিভাগের পাহাড় কেটে বনভূমি জবরদখলপূর্বক অবৈধ বসতি গড়ে উঠলেও বনবিভাগের সংশ্লিষ্টরা রয়েছে নির্বিকার।

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ফুলছড়ি রেঞ্জের খুটাখালী বনবিটের বনভূমিতে প্রকাশ্য দিবালোকে চলছে এ সব ঘটনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের নিকেটই কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ফুলছড়ি রেঞ্জের আওতাধীন খুটাখালী নয়াপাড়ায় স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্র প্রথমে প্রায় ৩০ শতক বনভুমি জবরদখলে নেয়। পরবর্তীতে স্থানীয় আহমদ উল্লাহর ছেলে জিয়াবুল দখলে নেয়ার পর প্রতিদিন রাতে শ্রমিক দিয়ে পাহাড় কেটে জায়গাটি সমতল করে নেন।

অভিযোগ উঠেছে, বনবিভাগের স্থানীয় কর্তাদের ম্যানেজ করে কয়েকদিন ধরে উল্লেখিত বনভুমিতে অবৈধ বসতি নির্মাণ করছেন। এ ঘটনায় এলাকার লোকজনের ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিলেও বনবিভাগের লোকজন রয়েছে অনেকটা নির্বিকার।

এলাকাবাসি অভিযোগ করেছেন, বনবিভাগের লোকজনের আসকারায় একই এলাকায় অনেক মূল্যবান বনভুমি অবৈধভাবে জবরদখল করে বসতবাড়ি নির্মাণ করছে। অনেকেই দখলের পর উচ্চ মূল্যে বিক্রিও করছেন। তবে বিক্রিত অর্থের একটি অংশ বনবিভাগের সংশ্লিষ্ট একটি পক্ষ পেয়ে থাকেন বলেও জানান স্থানীয় লোকজন।

জানতে চাইলে ফুলছড়ি রেঞ্জ কর্মকর্তা মো: জকরিয়ার বলেন, আগে একবার ওই জায়গা থেকে একাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছিল, এখনো এরকম জবরদখলের ঘটনা হয়ে থাকলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চকরিয়া, পাহাড়, বনভূমি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 + eleven =

আরও পড়ুন