চিৎমরমে স্থায়ী সেনাক্যাম্প স্থাপনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান

fec-image

রাঙামাটির কাপ্তাই ৩নং চিৎমরম ইউনিয়নে স্থায়ী সেনাক্যাম্প স্থাপনের দাবিতে কাপ্তাই নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছেন কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ

মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) বেলা ১২টায় এ স্মারকলিপি কাপ্তাই নির্বাহী অফিসার মুনতাসির জাহানের হাতে প্রদান করা হয়।

এর আগে চিৎমরম ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা যুবলীগ সদস্য হাবিবুর রহমানকে জেএসএস সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা মারধরের ঘটনায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

সূত্র জানায়, সোমবার সন্ধা ৬টায় কাপ্তাই উপজেলার ৩নং চিৎমরম ইউনিয়নে জেলা পরিষদ রেস্ট হাউজ থেকে যুবলীগ নেতা হাবিবুর রহমানকে জেএসএস সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হত্যার উদ্দেশ্যে তুলে নিয়ে যায়। পরে তাকে বেদম প্রহার করে বৌদ্ধ বিহারের মাঠে মুমূর্ষ অবস্থায় ফেলে চলে যায়। দলের নেতাকর্মীরা আহত হাবিবুর রহমানকে রাতে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চন্দ্রঘোনা খ্রিস্টিয়ান হাসপাতালে নেয়। পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। রাতে এ সংবাদ শুনে আ.লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীর মাঝে উত্তেজনা দেখা দেয় এবং সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবারও (৮ নভেম্বর) প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে চিৎমরমে জরুরিভাবে সেনা ক্যাম্প স্থাপনের দাবি জানিয়ে নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন তারা।

এসময় কাপ্তাই উপজেলা আ.লীগ সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী, রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মফিজুল হক, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মো. হানিফ, কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সিনিয়র সহ সভাপতি থোয়াইচিং মং মারমা, সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী, সহ-সভাপতি প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ, কাজী মাকসুদুর রহমান বাবুল, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওহাব, সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেন মিলন, কাপ্তাই উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মো. নাছির উদ্দীন, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অংসুই ছাইন চৌধুরী বলেন, চিৎমরমে জেএসএসের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের হুমকি ধামকি দিচ্ছে। ইতিমধ্যে তারা অনেক নেতাকর্মীকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। অনেক নেতাকর্মীকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর করছে। এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে অনেক আতঙ্ক বিরাজ করছে। তাই দ্রুত সময়ে চিৎমরম ইউনিয়নে স্থায়ী সেনা ক্যাম্প স্থাপনের জন্য জোর দাবি জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চিৎমরম, স্থায়ী সেনাক্যাম্প, স্মারকলিলি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন