মা-মেয়েকে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতন:

চেয়ারম্যানসহ ৮জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার হারবাং পহরচাঁদা এলাকায় মা-মেয়েকে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় আদালতের স্বতঃপ্রণোদিত মামলার প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়েছে। ওই প্রতিবেদনে তদন্তকারী কর্মকর্তার তদন্তে ৮জনের সম্পৃক্ততার কথা উঠে এসেছে।

বুধবার (৯সেপ্টেম্বর) আদালতে ওই প্রতিবেদন জমা দেওয়া হলে চকরিয়া সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রাজিব কুমার দেব চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলামসহ ৮জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

চকরিয়া জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের এডভোকেট ওমর ফারুক বলেন, স্বতঃপ্রণোদিত মামলায় তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর আদালতের বিচারক ৮জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। তদন্তে তাদের সম্পৃক্ততার কথা বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২১ আগস্ট মা-মেয়েকে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতন করার পর দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে হারবাং ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে দ্বিতীয় দফা নির্যাতন চালায় চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম। মা-মেয়েকে নির্যাতনের ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হলে তোলপাড় শুরু হয় পুরো দেশজুড়ে। এ ঘটনায় চকরিয়া সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রাজিব কুমার দেব স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করেন। ওই মামলার তদন্ত দেয়া হয় চকরিয়া সার্কেলের সহকারী পলিশ সুপার কাজী মতিউল ইসলামকে। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনও তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 + eight =

আরও পড়ুন