ছাত্র ও এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গর্জনিয়ায় প্রতিবাদ

fec-image

রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া ছাত্রসহ এলাকার নিরীহ মানুষের নামে দায়ের করা অভিযোগকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১১জুন) বিকেলে গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল এলাকায় এই প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে গর্জনিয়া ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়াডে সৃষ্ট বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বারের ইন্ধন রয়েছে। ওই অযোগ্য জনপ্রতিনিধি স্থানীয় বিচার সমাধান না করে থানা ও আদালতের দিকে বারবার ধাবিত করেছে।

আগামীতে দলীয় মানুষ ও স্থানীয় লোকজন কারো বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা যাবে না। অচিরেই এই মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। এই জন্য তারা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

উক্ত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সাবেক মেম্বার ফিরোজ আহমদ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. ইসমাইল, সহসভাপতি ইয়াহিয়া চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সালাম, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি মো. রাকিব, ছাত্রলীগ নেতা ইসকান্দর প্রমুখ।

প্রতিবাদ সভায় স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও এলাকার মুরব্বিরা উপস্থিত ছিলেন ।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ড বড়বিল এলাকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে স্থানীয় এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া ৪ ছাত্রসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে রামু থানায় একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে জনৈক জাকের হোসাইন।

ওই মামলার পর থেকে এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার নুরুল ইসলামের ইন্ধনে এলাকার এসব নিরীহ মানুষের বিরুদ্ধে মামলাটি করেছে বাদী। আর এই কারনেই প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে গ্রামবাসী।

এদিকে অভিযোগের বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ১নম্বর ওয়াডের অভিযুক্ত ইউপি মেম্বার নুরুল ইসলাম জানান, তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এলাকা সন্ত্রাস মুক্ত হয়েছে। কিন্তু নির্বাচনের শেষ সময়ে এসে তার প্রতিপক্ষ কিছু মানুষ ষড়যন্ত্রে নেমেছে। তাকে হুমকিও দেওয়া হচ্ছে। তবে এলাকায় বিচার না করে থানা ও আদালতে জনসাধারণের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়ার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 3 =

আরও পড়ুন