ছেলেধরা গুজব ঠেকাতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে মন্ত্রনালয়ের সতর্কতা

fec-image

ছেলেধরা গুজবের সঙ্গে কেউ যাতে শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করতে না পারে, সে জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধানদের নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) রাতে এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব স্বাক্ষরিত একটি পরিপত্র জারি করা হয়।

পরিপত্রে বলা হয়, ‘উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, একটি অসাধু মহল বিভিন্ন বিষয়ে গুজব ছড়িয়ে সমাজে অস্থিরতা সৃষ্টির অপপ্রয়াস চালাচ্ছে। সম্প্রতি গুজব ছড়িয়ে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলেধরা সন্দেহে নিরীহ মানুষের ওপরে আক্রমণ করা হয়েছে। কয়েকজনকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষগুলো গুজব প্রতিরোধের জন্য নানাবিধ কার্যক্রম গ্রহণসহ গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। শিক্ষার্থীদের আধিক্য এবং বয়সজনিত কারণে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে গুজব রটনা অনেকটাই সহজ। একারণে গুজব রটনাকারীরা অভিভাবক, শিক্ষার্থীসহ সর্বসাধারণকে এ কাজে ব্যবহার করছে।

এ অবস্থায় গুজব থেকে সাবধান থাকার জন্য অভিভাবক ও কোমলমতি শিক্ষার্থীদেরকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান ও শিক্ষকরা সচেতন করবেন। এ ধরনের কোনও ঘটনা আর যাতে কোথাও না ঘটতে পারে, সে জন্য সব ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ’

পরিপত্রে আরও বলা হয়, ‘গুজব রটনাকারীদের চিহ্নিত করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সোপর্দ করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ এ বিষয়ে বিশেষ সতর্ক থেকে তাৎক্ষণিকভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।’

ছেলেধরা গুজবের বিষয়ে সতর্ক থাকতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যানকেও নির্দেশনা পাঠিয়ে সব বিশ্ববিদ্যালয় নিয়মিত মনিটরিং করতে বলা হয়েছে।

একই বিষয়ে সতর্ক থাকার নির্দেশনা বাস্তবায়নে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালককে নির্দেশ দেওয়া হয়। পরিপত্রটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠিয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে মনিটরিং করাসহ প্রতি সপ্তাহে এ বিষয়ে প্রতিবেদন সংগ্রহেরও নির্দেশ দেওয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: গুজব, ছেলেধরা, শিক্ষা মন্ত্রণালয়
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − 5 =

আরও পড়ুন