জামিনে মুক্তি পেয়ে বাদিকে আসামিদের প্রাণ নাশের হুমকি

fec-image

সামাজিক বনায়ন ক্ষতিকরণের দায়ে ৫জনের বিরুদ্ধে রাঙ্গামাটি সিনিয়র আদালতে মামলা তদন্ত পূর্বক প্রমাণিত হওয়ায় ৫জনকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হয়। আসামিরা জেল থেকে জামিনে এসে বাদিকে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়েছে বলে আভিযোগ পাওয়া গেছে।

পার্বত্য চট্রগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগের কাপ্তাই রেঞ্জের শুকনাছড়ি বিটের সামাজিক বনায়নের বাদশার টিলা নামক এলাকায় ২০০৯-২০১৮ সনের সৃজিত আগর বাগানের ১০৫হেক্টর পাহাড়ি বনায়নের মধ্যে ৪ হেক্টর তিনটি প্লটের বাগানের চুক্তিবদ্ধ হন আলেক ভান্ডারী।

তদন্ত প্রতিবেদনে জানা যায়, আলেক ভান্ডারী বহু টাকা পয়সা খরচ করে সরকারি বনায়নের পাশাপাশি নিজে লক্ষ লক্ষ টাকার বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রোপন করে। এদিকে এলাকার দুস্কৃতিকারী মোঃ ইসমাল, মোঃ শাহাদাত, চানমিয়া, মোঃ ইউনুস ও মোঃ শহিদুল্লারা সম্প্রতি গরু দিয়ে এবং লক্ষ টাকার গাছ কর্তন করার অভিযোগ আদালতের প্রতিবেদনে প্রমাণিত হওয়ার ফলে গত বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) উপরোক্ত আসামিদের কাপ্তাই থানার এসআই খলিলুর রহমান আটক করে। আটকের পর রাঙ্গামাটি আদালতে তাদের সোপর্দ করা হয়।

এদিকে আলেক ভান্ডারী শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) অভিযোগ করে বলেন যে, আসামিরা জামিনে এসে আমাকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে এবং আমার বাগানে উঠতে দিবেনা বলছে। আমাকে নারী দিয়ে ফাঁসিয়ে দিবে বলে জানান। আমি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি বলে অভিযোগ করেছি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পার্বত্য চট্রগ্রাম, রাঙ্গামাটি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 5 =

আরও পড়ুন