জালিয়াতি মামলায় পেকুয়া উপজেলা চেয়ারম্যান কারাগারে

fec-image

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমকে দলিল জালিয়াতি মামলায় জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

রবিবার (৩১ অক্টোবর) চকরিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রাজিব কুমার দেব এই আদেশ দেন।

জানা গেছে, পেকুয়া সদর ইউনিয়নের শেখেরখিল্লাঘোনা এলাকার বাসিন্দা সাকেরা বেগমের পেকুয়া মৌজার ২০ শতক জমি আছে। ওই জমির ওপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে পেকুয়া উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের। ১৯৯৬ সালে অন্য এক মহিলাকে সাকেরা বেগম সাজিয়ে জাল দলিল সৃজন করে ওই জমি রেজিস্ট্রি করে নেন তিনি। পরে এসব জমি অন্যজনের কাছে বিক্রিও করে দেন তিনি।

২০২০ সালে বিষয়টি জানতে পেরে জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে চকরিয়া সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সিআর ৫৯২/২০ মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগি সাকেরা বেগম। এ মামলায় একমাত্র আসামি করা হয় জাহাঙ্গীর আলমকে। ওই মামলায় রবিবার জামিন নিতে গেলে আদালতের বিচারক জাহাঙ্গীর আলমকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট লুৎফুল কবির বলেন, তদন্ত প্রতিবেদনে জাল দলিল সৃজনের বিষয়টি প্রতীয়মান হওয়ায় আদালতের বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × two =

আরও পড়ুন