টেকনাফে অনুপ্রবেশকালে ৭ রোহিঙ্গা আটক

fec-image

টেকনাফের বিভিন্ন সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশকালে ৭ জন রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করেছে এপিবিএন পুলিশ।
সীমান্তে কড়া নিরাপত্তা থাকা স্বত্ত্বেও দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে আদম পাচারকারী সিন্ডিকেট কৌশলে সক্রিয় থাকায় মাদকসহ সীমান্ত অপরাধ থামানো যাচ্ছে না।

এপিবিএন সূত্র জানায়, গত ২৩ মে রাত সাড়ে ১১টায় নয়াপাড়া নিবন্ধিত শরণার্থী ক্যাম্প সংলগ্ন টিডিএস হাসপাতালের পাশ দিয়ে মিয়ানমার হতে দালালের মাধ্যমে নাফনদী সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশকালে নয়াপাড়া ক্যাম্পে দায়িত্বরত এপিবিএন পুলিশ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ফজল করিমের পুত্র আজিজুল হক (৪৪), হাবিবের পুত্র শাহ্ আলম (৫৫), মুসা আলীর পুত্র হোসেন আহমেদ (৬০), লোকমান হাকিমের পুত্র নুর সালাম (৪৭), ফয়েজ আহমদের পুত্র আবুল হোসেন (৫০), বশির আহমদের পুত্র মুদ্দাছার (২১) এবং রশিদ আহমদের পুত্র সালমান (২১) কে আটক করে। তারা সকলে কুতুপালং, শালবাগান, জাদিমুরা ও লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আত্মীয় স্বজনদের কাছে যাওয়ার জন্য এপারে চলে আসে বল জানা যায়।

কক্সবাজার ১৬ এপিবিএন পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এসপি মো. তারিকুল ইসলাম তারিক জানান, অনুপ্রবেশকালে ৭ জন রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করা হয়েছে। আরআরআরসির সিদ্ধান্তমতে আটককৃতদের বিরুদ্ধে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

স্থানীয় ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সভাপতি মোঃ শফি জানান, নাফনদী দিয়ে মাদকের চালান খালাস ও মানব পাচারের কারণে দীর্ঘ ৩-৪ বছর ধরে মাছ শিকার বন্ধ রয়েছে। কিন্তু আমরা নাফনদী নির্ভর জেলেরা মানবেতর দিনযাপন করে আসলেও কারো মাথাব্যথা হচ্ছেনা। এখনো বিভিন্ন সীমান্তে মাদক ও মানব পাচারে যারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা দরকার।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 − nine =

আরও পড়ুন