টেকনাফে খেলোয়াড়দের উপর হামলা: আহত ১২

fec-image

টেকনাফের কানজরপাড়ায় খেলা শেষে উখিয়া থাইংখালী খেলোয়াড় সমিতির সদস্যদের উপর স্থানীয় মেম্বার ও চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী কর্তৃক গাড়ি ভাংচুর করে অপহরণ পূর্বক মারধরের ঘটনা ঘটেছে। এতে খেলোয়াড়সহ ১২ জন আহত হয়।

পরবর্তীতে র‌্যাবের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এ ঘটনায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী ও সন্ত্রাসীদের কবল থেকে উদ্ধার হওয়া খেলোয়াড় সমিতির সদস্যদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, হোয়াইক্যংয়ের কানজরপাড়া থেকে ফুটবল খেলা শেষে খেলোয়াড়রা উখিয়ার থাইংখালীতে চলে আসার পথে হোয়াইক্যং এলাকায় পৌঁছলে ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী আবদুল গফ্ফার মেম্বারের নেতৃত্বে চৌকিদার নুরুল কবির পুতিয়া, মো. আমিনসহ ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী তাদের গাড়ি গতিরোধ করে অপহরণ পূর্বক অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে তাদের মারধরে ১২জন গুরুতর আহত হয়।

আহতদের মধ্যে যাদের নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন, থাইংখালী খেলোয়াড় সমিতির সদস্য মো. আবছার (২২), নাজিম উদ্দিন (২৫), সোলতান আহমদ (৩৫), মো. জাবেদ (২৮), নুরুল হক আব্বু (২৮), নুর মোহাম্মদ (২০), ফরিদ আলম (২০) ও শাহিন আলম (১৫)। এছাড়া আরও ৪জন রয়েছে। তাদেরকে বর্তমানে উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পার্বত্যনিউজকে পালংখালী ইউপি চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানান, হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার, ইয়াবা গডফাদার আবদুল গফ্ফার ও চৌকিদার সন্ত্রাসী পুতিয়া নেতৃত্বে তাদের অপহরণ করা হয়। পরে আমি খবর পেয়ে হোয়াইক্যংয়ের র‌্যাব’কে ঘটনা অবহিত করি। পরে দীর্ঘ ৩ ঘন্টা পর তাদেরকে সন্ত্রাসীদের কবল থেকে উদ্ধার করে মুমূর্ষু অবস্থায় উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরও বলেন, সন্ত্রাসীরা এসময় তিনটি সিএনজি ভাংচুর করে এবং ২টি মোটর সাইকেলসহ খেলোয়াড়দের নগদ টাকা ও মোবাইল গুলো ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে র‌্যাবের হোয়াইক্যংয়ের ইনচার্জ মেজর আরেফিন জানান, কানজরপাড়া ফুটবল টিম হেরে যাওয়ার পর থাইংখালী খেলোয়াড়দের উপর হামলা করে। এতে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় আহত হয়। পরে আমরা খবর পেয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে আহতদের হাসপাতালে প্রেরণ করি। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আহত, খেলোয়াড়, হামলা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 4 =

আরও পড়ুন