টেকনাফে দুই ডাকাত আটক, ৫ অগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার

fec-image

টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের রঙ্গীখালী জুম্মাপাড়া সংলগ্ন পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে ৫টি অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্রসহ ২ ডাকাতকে আটক করেছে র‍্যাব-১৫। সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) ভোর সাড়ে ৫টায় এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

ধৃতরা হলেন, টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড রঙ্গীখালী জুম্মাপাড়ার কামাল হোসনের ছেলে হেলাল উদ্দিন (২০) ও একই এলাকার বাসিন্দা কালা মিয়ার ছেলে মো. ঈসমাইল (২৫)। এরা টেকনাফের ডাকাত ফরিদুল আলম গ্রুপের সদস্য।

জানা যায়, টেকনাফ উপজেলার রঙ্গিখালী জুম্মাপাড়ায় পাহাড়ে ডাকাত ফরিদুল আলম গ্রুপের সদস্যরা বিভিন্ন অপরাধ করার জন্য পরিকল্পনা করছিল। এ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-১৫ এর চৌকস আভিযানিক একটি দল ৬ সেপ্টেম্বর (সোমবার) সকাল সাড়ে ৫টার দিকে হ্নীলা রঙ্গীখালী জুম্মাপাড়া পাহাড়ে পৌঁছেন।

র‍্যাব-১৫ এর উপস্থিতি বুঝতে পেরে ডাকাতদল ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে ৬/৭ জন সশস্ত্র ডাকাত পাহাড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে ২ ডাকাতকে আটক করতে সক্ষম হয়। অপরাপর ডাকাত সদস্যরা পাহাড়ে পালিয়ে যায়। আটকদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় অবৈধ একটি এসবিবিএল, ৪টি ওয়ানশুটার গানসহ ৫টি অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র।

উক্ত তথ্য বিশ্চিত করে র‍্যাব-১৫এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী আরও জানান, কক্সবাজারের টেকনাফ এলাকায় ফরিদুল আলম গ্রুপ কুখ্যাত ডাকাত গ্রুপ হিসেবে পরিচিত।

উক্ত ডাকাত গ্রুপ রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ আশপাশ এলাকায় ডাকাতি, ধর্ষণ, অপহরণ, অস্ত্র ও মাদক ব্যবসা, মুক্তিপণ আদায়সহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িত। বিশেষ করে বিভিন্ন ব্যক্তিকে অপহরণের পর অপহৃতর পরিবার থেকে মুক্তিপণ আদায় করাই ছিল এ ডাকাত গ্রুপের নিয়মিত ঘটনা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 + 15 =

আরও পড়ুন