টেকনাফে বাস-সিএনজির সংঘর্ষে একই পরিবারের নিহত-৩, আহত-৫

fec-image

টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কে যাত্রীবাহী সিএনজি এবং বাসের মুখোমুখী সংঘর্ষে পিতা-পুত্র ও অপর এক শিশুসহ ৩জন নিহত এবং সিএনজি চালকসহ ৫জন আহত হয়েছে।

১০ফেব্রুয়ারি (বুধবার) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার হোয়াইক্যং লম্বাবিল দক্ষিণ মাথা উনচিপ্রাংয়ের পূর্বে টেক পয়েন্টে কক্সবাজার থেকে টেকনাফগামী যাত্রী বোঝাই পালকী পরিবহন (কক্সবাজার-জ-১১-০২৩৮) এবং হ্নীলা মরিচ্যাঘোনা হতে কক্সবাজারগামী সিএনজি (কক্সবাজার-থ-১১-৮৭৪৬)এর মধ্যে মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়।

এতে হ্নীলা মরিচ্যাঘোনার সিএনজি যাত্রী ছালামত উল্লাহ(৬০), ছালামত উল্লাহর পুত্র নজরুল (৩০) ঘটনাস্থলে মারা যায়। এই ঘটনার খবর পেয়ে হোয়াইক্যং হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আহতদের দ্রত উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পালংখালী গয়ালমারা এমএসএফ হাসপাতালে প্রেরণ করে এবং বাসের ড্রাইভার ও বাসটি জব্দ করে ফাঁড়িতে নিয়ে আসে। এতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কামরুলের ৭/৮মাসের এক মেয়ে শিশু মারা যায় বলে স্থানীয় একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছেন।

এছাড়া গয়ালমারা হাসপাতাল হতে হ্নীলা পানখালী শিয়াইল্যা মোরার নজরুলের স্ত্রী রোকেয়া ও শিশু মেয়ে, কামরুলের স্ত্রী নুর নাহার ও ১০/১১ বছরের মেয়ে এবং সিএনজি চালক আলী আকবর পাড়ার আবুল মঞ্জুরের পুত্র নুরুল মোস্তফাসহ ৫ জন নারী-শিশু ও পুরুষকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে নিহত নজরুলের শিশু মেয়ে এবং কামরুলের কিশোরী মেয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − 13 =

আরও পড়ুন