টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে গোলাগুলিতে যুবক নিহত; আগ্নেয়াস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার

fec-image

কক্সবাজারের টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবি’র সঙ্গে গোলাগুলিতে মোহাম্মদ ইব্রাহীম (৩০) নামের এক মাদক ব্যবসায়ি নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তি হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোরা এলাকার সৈয়দ আলীর ছেলে। ঘটনাস্থল থেকে ২০ হাজার ইয়াবা, ১ টি আগ্নোয়াস্ত্র, দুই রাউন্ড তাজা কার্তূজ, দুইটি ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয়। পাচারকারী ও ইয়াবা বহনে একটি অনথেস্ট সিএনজি জব্দ করা হয়।

বুধবার (৩১ জুলাই) ভোর রাত ৩ টার দিকে টেকনাফ মেরিনড্রাইভ সড়কে বিজিবির মাদক বিরোধী অস্থায়ী চেকপোষ্টে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। বিজিবির দাবি তিনি একজন চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী। এ ঘটনায় বিজিবির দুই সদস্য আহত হন।

টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে.কর্ণেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান জানান, রাত দেড়টার দিকে দায়িত্বরত বিজিবির একটি টিম মেরিনড্রাইভ খুরের মুখে টহল দিচ্ছিল। এ সময় কক্সবাজারগামী একটি অনথেস্ট সিএনজি আসতে দেখে থামানোর সংকেত দেয়। সিএনজিটি তা উপেক্ষা করে চলে যায়। তাৎক্ষনিক বিজিবির দলটি দুই কিলোমিটার উত্তরে অপর চেকপোষ্টে খবর পৌঁছায়। চেকপোষ্টটি ব্লক করে দিলে সিএনজি পৌঁছামাত্রই এলোপাতাড়ি গুলি করতে থাকে।

এতে বিজিবির দুই সদস্য আহত হলে বিজিবির সদস্যরাও জানমাল রক্ষার্থে কৌশলগত অবস্থান নিয়ে পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় ৫-৬ মিনিট গুলি বিনিময় হওয়ার পরে অন্যান্য অস্ত্রধারীরা পালিয়ে যায়। বেশ কিছুক্ষণ পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ওই সব ইয়াবা ও অস্ত্রসহ গুলিবিদ্ধ যুবককে উদ্ধার করে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে গুলিবিদ্ধ যুবক মোঃ নুর হোসেন, মোঃ আব্দুল কাশেম ও মোহাম্মদ তাহের সিএনজিতে ছিল বলে তিনি উল্লেখ করেন।

সিও জানান, আহত বিজিবির দুই সদস্য টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ রয়েছেন। পাশাপাশি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কক্সবাজার, টেকনাফ, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × two =

আরও পড়ুন