টেকনাফ পৌরসভায় প্রথমবার ইভিএম-এ নির্বাচন: সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

fec-image

টেকনাফ পৌরসভা, বাহারছড়া এবং সেন্টমার্টিন ইউপি নির্বাচনে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে নির্বাচনী সরঞ্জাম কেন্দ্রে সরবরাহ করা হয়েছে। পৌরসভাসহ দুই ইউনিয়নে মোট ভোটার রয়েছে ৩৯ হাজার ৪২৮ জন।

রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) প্রথম বারের মতো টেকনাফ পৌরসভায় ইলেকট্রনিক্স ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এবং একই দিন সেন্টমার্টিন ও বাহারছড়া ইউনিয়নে কাগজের ব্যালটে ভোট হবে।

নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ, কোস্টগার্ড র‌্যাব ও বিজিবি মাঠে নেমেছেন। শিথিল করা হয়েছে যানবাহন চলাচল। কেন্দ্রে দায়িত্ব কালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যের (ড্রেসে) সংযুক্ত থাকবে গোপন ক্যামেরা।

টেকনাফ নির্বাচন অফিসের সূত্র মতে, টেকনাফ পৌরসভাসহ সেন্টমার্টিন ও বাহারছড়ায় মোট ২৭টি কেন্দ্রে ১১৪টি বুথ রয়েছে। এসব কেন্দ্রে ১০টি অতি ঝুঁকি পূর্ণ কেন্দ্র হিসাবে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন।

এবারে পৌরসভায় মেয়ের পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন দুইজন। পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে এবারে পাচঁ ওর্য়াডে নারী পুরুষ মিলিয়ে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে মোট ৩৩ জন। এর আগে ৩, ৬, ৭, ও ৮নং ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চার জন কাউন্সিলর নির্বাচিত হন।

পৌরসভায় মোট ভোটের সংখ্যা ১৬ হাজার ৮৫ জন। তৎমধ্যে পুরুষ ৮ হাজার ৩১২, নারী ৭ হাজার ৭৭৩ জন। বাহারছড়া ইউনিয়নে ভোটার সংখ্যা, ১৯ হাজার ৯৭৮ এবং সেন্টমার্টিনে ৩ হাজার ৩৬৫ জন। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. বেদারুল ইসলাম জানান, নির্বাচন সুস্থ ও অবাধ নিরপেক্ষ করতে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

শনিবার সরেজমিনে দেখা যায়, দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত উপজেলা নির্বাচন অফিস কড়া নিরাপত্তায় প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ও পোলিং এজেন্টরা ব্যালট বাক্স ও সরঞ্জাম স্ব স্ব কেন্দ্রে নিয়ে যাচ্ছেন।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজ চৌধুরী জানান, অবাধ, সুষ্ট ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষ্যে টেকনাফ পৌরসভায় ৯ জন, বাহার ছড়া ইউনিয়নে ৪ জন ও সেন্টমার্টিনে ২ জন নিবাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৩ প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাব, কোস্টগার্ড ও পুলিশের ৫ টিম মাঠে কাজ করবেন। পাশাপাশি প্রতি কেন্দ্রে কর্মকর্তাসহ ৫ জন পুলিশ ও ১৭ আনসার-ভিডিপি দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়াও নিবাচনী এলাকায় নির্বার্হী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্স কাজ করবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × four =

আরও পড়ুন