‘ড্রাগ লাইসেন্স ও ফার্মাসিস্ট ছাড়া ঔষধ বিক্রি করা যাবে না’

fec-image

ড্রাগ লাইসেন্স ও ফার্মাসিস্ট ছাড়া কোন ঔষধ বিক্রি করা যাবে না বলে জানিয়েছেন ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমান।

তিনি বলেন, ড্রাগ লাইসেন্স না থাকা মানে দোকান অবৈধ। ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন ছাড়া এন্টিবায়োটিক ঔষধ বিক্রি নিষিদ্ধ।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে কক্সবাজার ইউনিয়ন হাসপাতালের ‘ইউনিয়ন মডেল ফার্মেসি’ উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে মেজর জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমান এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, দেশে মানসম্মত ঔষধ উৎপাদন হচ্ছে। সারাদেশে ৫০০ মডেল ফার্মেসি করা হয়েছে। ড্রাগ লাইসেন্স ও ফার্মাসিস্ট ছাড়া কোন ঔষধ বিক্রি করা যাবে না। বন্ধ করা হবে যত্রতত্র ঔষধ বিক্রি।

এ সময় তিনি দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা আরও উন্নত করা হবে বলেও সাংবাদিকদের জানান।

কক্সবাজারের বিষয়ে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, কক্সবাজারে এখনো পর্যন্ত একজন দিয়ে তাদের কাজ চলছে। যে কারণে অনেক কাজ সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করা অসম্ভব। এসব বিবেচনায় আরেকজন ড্রাগ সুপার দেয়া হবে। তখন তদারকি বাড়বে। নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে সবকিছু।

কিছু ঔষধের দোকানে অতিরিক্ত দাম নেয়ার অভিযোগ রয়েছে, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মেজর জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমান বলেন, ঔষধের দোকানে তদারকির পাশাপাশি সঠিক অভিযোগ ও তথ্যের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ সময় ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোঃ সালাহ উদ্দিন, ড্রাগ সুপার রুমেল মল্লিক, ইউনিয়ন হাসপাতালের চেয়ারম্যান আরিফ উল মওলা, বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি কক্সবাজারের সহসভাপতি মিজানুর রহমান, সদস্য রাজু সেন, তিলক চৌধুরী, শেখ সেলিম, মোঃ ইলিয়াছ, হাবিবুল ইসলাম, রোগো দাশসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভা শেষে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমানকে কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি কক্সবাজারের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কক্সবাজার, ড্রাগ লাইসেন্স, ফার্মাসিস্ট
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − sixteen =

আরও পড়ুন