তাইওয়ানে গেলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি ন্যান্সি পেলোসি: যুদ্ধের প্ররোচনা বলছে চীন

fec-image

চীনের হুমকি উপেক্ষা করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি মঙ্গলবার (২ আগস্ট) তাইওয়ানের রাজধানী তাইপেইতে পৌঁছেছেন। ২৫ বছরের মধ্যে এই প্রথম কোনো মার্কিন শীর্ষ কর্মকর্তা তাইওয়ানে গেলেন।

তাইওয়ানের সংবাদমাধ্যম তাইওয়ান নিউজ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪৪ মিনিটে পেলোসি এবং তার কংগ্রেস প্রতিনিধিদল ইউএস এয়ার ফোর্সের বোয়িং সি-৪০সি তে করে তাইপেই সোনশান বিমানবন্দরে পৌঁছান।

বিমান ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ফ্লাইট এওয়ারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, সি-৪০সি প্রথমে সিঙ্গাপুরের পায়া লেবার এয়ার বেস থেকে সকাল ৯টা ৪৮ মিনিটে টায় উড্ডয়ন করে এবং কুয়ালালামপুর সফরের জন্য মালয়েশিয়ার সুবাং জায়াতে সকাল ১০টা ৩৩ মিনিটে অবতরণ করে। বিকাল ৩টা ৪২ মিনিটে পেলোসির বিমান দক্ষিণ চীন সাগর এড়াতে ইন্দোনেশিয়ার বোর্নিও অঞ্চল হয়ে পূর্ব দিকে উড়েছিল। সন্ধ্যা ৬ টা ২৬ মিনিটে বিমানটি ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়াসি দ্বীপের টলি টলিতে অবতরণ করে। ঠিক এক ঘন্টা পরে সন্ধ্যা ৭টা ২৭ মিনিটে পেলোসির বিমানটি আবার উড্ডয়ন করে এবং মিন্দানাওর ফিলিপাইন দ্বীপের উপকূল থেকে উত্তর-পূর্ব দিকে উড়ে যায়। এটি তখন উত্তর-পূর্ব দিকে মোড় নেয় এবং ফিলিপাইনের পূর্ব উপকূল ধরে উড়তে থাকে। ফ্লাইটের শেষ পর্যায়ে, বিমানটি যখন তাইওয়ানের হুয়ালিয়েন কাউন্টির কাছাকাছি আসে, তখন এটি উত্তর তাইওয়ানের পূর্ব উপকূলে মোড় নেয়।

ন্যান্সি পেলোসি তাইওয়ানে গেলে ওয়াশিংটনকে পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে মঙ্গলবার হুঁশিয়ারি দিয়েছে চীন। বেইজিং জানিয়েছে, এই সফরের জন্য মার্কিন পক্ষ দায় বহন করবে এবং চীনের সার্বভৌম নিরাপত্তা স্বার্থকে ক্ষুন্ন করার জন্য মূল্য দিতে হবে।

প্রসঙ্গত, তাইওয়ানকে স্বাধীন রাষ্ট্র নয় বরং নিজেদের বিচ্ছিন্ন অঞ্চল বলে দাবি করে আসছে চীন। তাই পেলোসির তাইওয়ান সফরকে যুদ্ধের প্ররোচনা বলে অভিযোগ করছে বেইজিং।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চীন, তাইওয়ান, ন্যান্সি পেলোসি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 + 10 =

আরও পড়ুন