তুরস্কের ড্রোনগুলো হট কেকের মতো বিক্রি হচ্ছে!

fec-image

সম্প্রতি তুর্কি ড্রোনগুলো বিস্ময়কর সাফল্য লাভ করেছে। এ ড্রোনগুলো সিরিয়া ও লিবিয়াতে মোতায়েনকৃত রাশিয়ার ব্যয়বহুল ও শক্তিশালী পানসির বিমান বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে অকার্যকর করে দিয়েছে। এছাড়া আর্মেনিয়ায় মোতায়েনকৃত রাশিয়ার মিসাইল ব্যবস্থাকে অকার্যকর করে দিয়েছে এ ড্রোনগুলো।

এসব সাফল্যের কারণে তুরস্কের ড্রোনগুলো হট কেকের মতো বিপুল সংখ্যায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছে ফরাসি পত্রিকা লে মনডে। শুক্রবার পত্রিকাটি এ তথ্য প্রকাশ করে।

তুরস্ক সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তাদের সামরিক শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিপুল সংখ্যক ড্রোন নির্মাণ করছে। এছাড়া তুরস্ক নির্মিত ড্রোনগুলোও ব্যাপকহারে বিক্রি হচ্ছে।

তুরস্কের ড্রোনগুলো সিরিয়া, লিবিয়া ও নাগরনো-কারাবাখে সাফল্য লাভের পর তাদের বিক্রি বেড়েছে। সাবেক সোভিয়েতভুক্ত দেশগুলোতেও এ ড্রোনগুলোর চাহিদা বেড়েছে বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি।

দামি ও কার্যকর এ ড্রোনগুলো তুরস্কের বায়কার কোম্পানি তৈরি করেছে। এ ড্রোনগুলো যুদ্ধের গতি প্রকৃতিই বদলে দিয়েছে। ২০২০ সালে এ ড্রোনগুলো যে তিন দেশে ব্যবহৃত হয়েছে সেখানকার প্রতিপক্ষ বাহিনীর ট্যাংক, আর্মড ভেইকল, গোলা-বারুদের গুদাম ও বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে।

ফ্রান্সের লে মনডে পত্রিকাটি জানিয়েছে, মাত্র ১০ বছরেরও কম সময়ের মধ্যে তুরস্ক ড্রোন নির্মাণে যুক্তরাষ্ট্র, ইসরাইল ও চীনের মতো প্রভাবশালী দেশে পরিণত হয়েছে।

পত্রিকাটি আরও জানিয়েছে প্রচুর চাহিদা সম্পন্ন এ বায়রাখতার টিবি-২ ড্রোন যুদ্ধের সময় শত্রু পক্ষের অবস্থান সম্পর্কে তথ্য দিতে পারে। এ ড্রোনগুলো জঙ্গিবিমানকে পথ নির্দেশ দেয় এবং আক্রমণ পরিচালনার জন্য চারটি মিসাইল বহন করতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 + six =

আরও পড়ুন