দীঘিনালায় জাল সনদে বাল্যবিবাহের চেষ্টা: কন্যার পিতার জেল

fec-image

দীঘিনালা উপজেলায় জাল সনদে বাল্যবিবাহ দেয়ার অভিযোগে কন্যার পিতার জেল প্রদান করা হয়েছে।

শুক্রবার উপজেলার বড় মেরুং এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৬ মাসের জেল প্রদান করা হয়। কন্যার পিতার নাম নূর নবী (৪০), সে উপজেলার বড় মেরুং এলাকার আবদুল মজিদের ছেলে।

জানাযায়, অপ্রাপ্ত মেয়ের জন্মসনদ জাল করে বিয়ের আয়োজন করে বড় মেরুং এলাকার নূর নবী। বর এসে কনে বাড়িতে হাজির হওয়ার পর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ উল্ল্যাহ।| এদিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের খবর পেয়ে পালিয়ে যায় বর পক্ষ।

এদিকে জন্মসনদ দেখা যায় ২০০৩ সনের পয়লা ফেব্রুয়ারি জন্মসনদটি পরিবর্তন করে ২০০১ সনের পয়লা ফেব্রুয়ারি জাল করে সনদ তৈরি করে কন্যার বিয়ের আয়োজন করা হয়।

এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালতে জাল সনদে বিয়ের আয়োজন করায় কন্যার পিতা নূর নবী (৪০)কে ছয় মাসের জেল প্রদান করা হয়|

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ উল্ল্যাহ সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ এর ৮ ধারায় কন্যার পিতা নূর নবীকে ৬ মাসের জেল প্রদান করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কন্যার পিতার জেল, বাল্যবিবাহের চেষ্টা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 + fifteen =

আরও পড়ুন