ধোয়া তুলসি পাতা নন সানিয়াও! বিধর্মী অভিনেতার সঙ্গেও ছিল সম্পর্ক

fec-image

সানিয়ার নাম জড়ায় দক্ষিণী সিনেমার নায়ক নবদীপ পালাপলুরের সঙ্গে। যদিও নবদীপ দাবি করেছেন যে সানিয়া তাঁর ভালো বন্ধু। তাঁরা সেই জন্য একসঙ্গে বেশ কয়েকবার সময় কাটিয়েছেন।

শেষ হল শোয়েব মালিক ও সানিয়া মির্জার দীর্ঘ ১৩ বছরের সম্পর্ক। আনুষ্ঠানিকভাবে যা শনিবার প্রকাশ্যে এল। কারণ, অনেকদিন ধরেই সানিয়া-শোয়েবের ডিভোর্স নিয়ে জল্পনা চলছিল। তবুও একটা ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছিল দুই তারকার সম্পর্ক। কারণ, বিয়ে ভাঙার ব্যাপারে না সানিয়া, না শোয়েব- কেউই মুখ খোলেননি। তবে, আকারে-ব্যবহারে বোঝা যাচ্ছিল যে দু’জনের মধ্যে সম্পর্ক বোধহয় ঠিক নেই। দুই তারকা দম্পতির সম্পর্কে চিড় ধরেছে।

ইতিমধ্যেই শোয়েবের একাধিক সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে এসেছে। পাকিস্তানের অভিনেত্রী সানা জাভেদ এবং সানিয়া মির্জার আগে ২০০২ সালে আয়েশা সিদ্দিকিকেও বিয়ে করেছিলেন শোয়েব মালিক। সেই আয়েশা সিদ্দিকিও ভারতের হায়দরাবাদের বাসিন্দা। ২০১০ সালের আয়েশার সঙ্গে শোয়েবের বিচ্ছেদ হয়। আর, সেই বছরই সানিয়া মির্জাকে বিয়ে করেছিলেন শোয়েব। ২০১৮ সালে তাঁদের সন্তান ইজহানের জন্ম হয়। বলা হয়, আয়েশাকে বিচ্ছেদের জন্য ১৫ কোটি টাকা দিয়েছিলেন শোয়েব মালিক। এতেই শেষ নয়, এর মধ্যেই শোয়েবের বিরুদ্ধে পাক অভিনেত্রী আয়েশা ওমরের সঙ্গে পরকীয়ার অভিযোগ ওঠে। দুজনে এক ফটোশ্যুটে গিয়ে একসঙ্গে একাধিক ছবি তুলেছিলেন। অন্তরঙ্গ সেই ঘনিষ্ঠ ছবি ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল পাক মুলুকে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন